এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে ৩৭তম বিসিএসের ফল
১১ মার্চ, ২০১৮ ইং
সাইদুর রহমান

আগামী মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে ৩৭তম বিসিএস পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করার পরিকল্পনা করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। তার আগে ৩৬তম বিসিএস নন-ক্যাডার প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির নিয়োগ সুপারিশের কার্যক্রম শেষ করবে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি। এদিকে, ৩৭তম বিসিএসের ফলাফল প্রকাশের পর ৩৯তম বিশেষ বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ এবং ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করা হবে। পাশাপাশি আগামী জুন মাসে ৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পরিকল্পনা রয়েছে।

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে পিএসসির চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক ইত্তেফাককে বলেন, চলতি মাসে অথবা এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে ৩৬তম নন-ক্যাডারের প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির ফলাফল প্রকাশ করা হবে। আর এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে ৩৭তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশের প্রস্তুতি চলছে।

পিএসসির সংশ্লিষ্টদের মতে, পিএসসি ৩৬তম বিসিএসের ৩৬৬টি ক্যাডার পদ ৩৭তম বিসিএসের মেধা তালিকা থেকে এবং ৩৭তম বিসিএসের বিভিন্ন কোটার পদ খালি থাকলে তা মেধা তালিকা থেকে পূরণ করবে। ২০১৬ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি ৩৭তম বিসিএসের বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা হয়েছিল ১ হাজার ২২৬টি শূন্য পদ পূরণের জন্য। এর সঙ্গে ৩৬তম বিসিএসের শূন্য ৩৬৬টি পদ যোগ করে মোট ১ হাজার ৫৯২টি পদ ৩৭তম বিসিএস থেকে পূরণ করা হবে।

গত বছরের ২৯ নভেম্বর থেকে গত ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৩৭তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। তার আগে গত বছরের ২৫ অক্টোবর ৩৭তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করে পিএসসি। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন ৫ হাজার ৩৭৯ জন। অন্যদিকে, ৩৬তম বিসিএস নন-ক্যাডার পদে উত্তীর্ণ ৩ হাজার ৩০৮ জনের মধ্যে ২৭শ পরীক্ষার্থী আবেদন করেছেন। এই ২৭শ প্রার্থীকে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির নন-ক্যাডার পদে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করা হবে। এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির একটি তালিকার মাধ্যমে ৩৬তম বিসিএসের নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হচ্ছে। গত বছরের ১৭ অক্টোবর ৩৬তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হয়। এতে দুই হাজার ৩২৩ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করা হয়। পর্যাপ্ত ক্যাডার পদ না থাকায় তিন হাজার ৩০৮ জনকে নন-ক্যাডার পদে নিয়োগে সুপারিশের জন্য উত্তীর্ণের তালিকায় রাখা হয়েছে। এর মধ্যে নন-ক্যাডার পদের জন্য প্রায় দুই হাজার ৭০০ প্রার্থী আবেদন করেছেন। প্রায় ৬০০ জন নন-ক্যাডারের জন্য আবেদন করেননি।

৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি জারি জুনে

চলতি বছরের জুন মাসে ৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি জারির পরিকল্পনা করেছে পিএসসি। ইতোমধ্যে ২১শ শূন্য পদের তালিকা পেয়েছে কমিশন। এর আগে ৩৯তম বিশেষ (স্বাস্থ্য) বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি জারি করবে পিএসসি। আগামী এপ্রিলের শেষদিকে ৩৯তম বিসিএসে বিজ্ঞপ্তি জারির চিন্তা-ভাবনা করছে কমিশন। বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে প্রায় ৫ হাজার চিকিত্সক নিয়োগের সুযোগ পাচ্ছেন। এ জন্য আসন্ন ৩৯তম বিসিএসকে ‘বিশেষ বিসিএস’ হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে। এই বিসিএসের মাধ্যমে স্বাস্থ্য ক্যাডারে ৪৫৪২ জন সহকারী সার্জন এবং ২৫০ জন সহকারী ডেন্টাল সার্জন নিয়োগ পাবেন। এর আগে ৩৩তম বিসিএস থেকে প্রায় ৬ হাজার চিকিত্সক নিয়োগ দেয়া হয়েছিল।

পিএসসির সংশ্লিষ্টদের মতে, পিএসসির প্রতি এখন পরীক্ষাদের আস্থা শতভাগ। মেধার প্রতিফলন ঘটছে। এছাড়াও পিএসসির ইতিহাসে একসঙ্গে এতো সংখ্যক বিসিএস নিয়ে কাজ করার নজিরও নেই। পরীক্ষায় দীর্ঘসূত্রতা, প্রশ্নফাঁস বা ফলে অনিয়মের অভিযোগও নেই।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ মার্চ, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৬
যোহর১২:০৯
আসর৪:২৭
মাগরিব৬:০৯
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৬:০৪
পড়ুন