শহীদ বুদ্ধিজীবীর স্মৃতিস্তম্ভ
১৩ জুন, ২০১৬ ইং
শহীদ বুদ্ধিজীবীর স্মৃতিস্তম্ভ
মহান মুক্তিযুদ্ধের অগ্নিঝরা দিনগুলিতে অধ্যাপক আরজ আলী বর্তমান নেত্রকোণা সরকারি কলেজে দর্শন বিভাগে কর্মরত ছিলেন। নেত্রকোণা জেলার বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধাদের ভাষ্যমতে ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায় যে, তিনি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের একজন আঞ্চলিক সংগঠক। নেত্রকোণা জেলার বহু মুক্তিযোদ্ধাই ছিলেন তাঁর প্রত্যক্ষ ছাত্র। মহান মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষে অবস্থান নেওয়ায় পাকিস্তানি বর্বর বাহিনী ও তাদের এদেশীয় দোসরদের  হাতে ১৯৭১ সালের ১৬ আগস্ট তিনি নিহত হন। বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কর্তৃক তাঁর স্মরণে স্মারক ডাকটিকেটও প্রকাশিত হয়েছে। স্বাধীনতার অব্যবহিত পরে কলেজ কর্তৃপক্ষ তাঁর স্মৃতির স্মরণে পুষ্পাকৃতির একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ করেন। শহীদ পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে সমপ্রতি কলেজে গিয়ে দেখতে পাই যে, স্মৃতিস্তম্ভটি সম্পূর্ণ অরক্ষিত ও নামফলকবিহীন অবস্থায় পড়ে আছে। স্মৃতিস্তম্ভটির ঊর্ধ্বমুখী শীর্ষটি সম্পূর্ণ নিশ্চিহ্ন এবং পাশের কটি পাপড়িও ভেঙে ঝুলে আছে। শহীদদের নামে স্ব কর্মস্থল ও এলাকায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে স্মারক স্থাপনা নির্মাণের জন্য নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও কলেজের বর্তমান ব্যাপক বর্ধিত কলেবরেও শহীদ বুদ্ধিজীবী অধ্যাপক আরজ  আলীর নামে এ পর্যন্ত কোনো স্থাপনার নামকরণ করা হয়নি। এ অবস্থায়, যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদের পূণ্যস্মৃতি  ও মুক্তিযুদ্ধের আঞ্চলিক ইতিহাস ধরে রাখার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ ও সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

মো. রফিকুল ইসলাম,

সহকারী অধ্যাপক, অর্থনীতি,

সুসং মহাবিদ্যালয়, দুর্গাপুর, নেত্রকোণা

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন