চার নারী নাট্যশিল্পীকে সম্মাননা...
১৫ জুন, ২০১৫ ইং
n মহিলা অঙ্গন প্রতিবেদক

 

গত শনিবার মণিপুরি থিয়েটারের নাট্য প্রযোজনা ‘কহে বীরাঙ্গনা’র ৫০তম প্রদর্শনীর সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সম্মাননা জানানো হয়েছে চার মেধাবী নারী নাট্যশিল্পীকে। নাটকটির সুবর্ণজয়ন্তী প্রদর্শনীর চারটি পর্ব এ সময়ের মেধাবী চার নারী নাট্যশিল্পীকে সম্মান জানিয়ে মঞ্চস্থ করা হয়েছে। এ সময় চার নারী নাট্যশিল্পীকে সম্মাননা স্মারক হিসেবে পরিয়ে দেয়া হয়েছে মণিপুরি উত্তরীয়।

জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটার হলে গত ১৩ জুন সন্ধ্যায় ‘কহে বীরাঙ্গনা’র ৫০তম প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষে তমালিকা কর্মকার, রোজী সিদ্দিকী, ত্রপা মজুমদার ও সামিনা লুত্ফা নিত্রাকে সম্মাননা জানিয়েছে মণিপুরি থিয়েটার।

২০১০ সালে মঞ্চে আসে মণিপুরি থিয়েটারের নাট্যপ্রযোজনা ‘কহে বীরাঙ্গনা’। এর পর বাংলাদেশের বিভিন্ন মঞ্চে নাটকটির প্রদর্শনী হয়েছে। ভারতের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের আমন্ত্রণে নাটকটির বিশেষ প্রদর্শনী হয়েছে আগরতলা ও আসামে। এ ছাড়া ভারতের প্রথম সারির দৈনিক পত্রিকা টাইমস অব ইন্ডিয়ার আমন্ত্রণে কলকাতায় নাটকটির বিশেষ প্রদর্শনী হয়েছে। টাইমস অব ইন্ডিয়া এ নাটকটির উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ২০১২ সালের সেরা মঞ্চনাটক হিসেবে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইডিইবি) প্রদত্ত আব্দুল জব্বার খান পদক অর্জন করে ‘কহে বীরাঙ্গনা’। মাইকেল মধুসূদন দত্তের বীরাঙ্গনা কাব্য থেকে নাটকটির রূপান্তর ও নির্দেশনা দিয়েছেন শুভাশিস সিনহা। এতে একক অভিনয় করছেন জ্যোতি সিনহা। নাটকটিতে জ্যোতি সিনহার সঙ্গে ভাবমুদ্রা রূপায়ণে রয়েছেন-স্মৃতি সিনহা, শুক্লা সিনহা, সুনন্দা সিনহা ও ভাগ্যলক্ষ্মী সিনহা। সঙ্গীতে রয়েছেন শর্মিলা সিনহা, বাদ্যে রয়েছেন বিধান চন্দ্র সিংহ ও লক্ষ্মণ সিংহ।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৫ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন