উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প ২০১৭
নারীর দুর্ভোগ নিরসনে নারীর উদ্ভাবন
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
নারীর দুর্ভোগ নিরসনে নারীর উদ্ভাবন
মো: নাজমুল আলম

বাংলাদেশের মোট জনগোষ্ঠীর প্রায় এক-পঞ্চমাংশ কিশোর-কিশোরী, যার ১৩.৭ লক্ষ মেয়ে।  এখনও বয়োসন্ধিকাল সম্পর্কে মনে জাগা নানা প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে থাকে আমাদের সমাজের মেয়েরা। সমাজ মেয়েদের এসময়টাকে অনেকটা এড়িয়ে চলতে পারলেই মনে হয় হাফ ছেড়ে বেঁচে যায়। ফলে প্রশ্নের উত্তর মিললেও তা থাকে কুসংস্কারের মোড়কে মোরা। ভ্রান্তি আর কুসংস্কারাচ্ছাদিত এসব উত্তরের কারণে মেয়েরা প্রতিদিন নানা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। অনেক সময় তাদের পড়ালেখা ছেড়ে দিতে হচ্ছে আরও জটিল অবস্থায় কেউ কেউ মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পতিত হচ্ছে। কিশোরীরা যদি তাদের এসব সমস্যার সমাধান পায় খেলার ছলে? একই সাথে তারা এসব প্রশ্নের উত্তর পাবে এবং কিন্তু প্রশ্ন করতে ভয় পাবে না! কিশোরীদের এসব সমস্যার একটি সমাধানের চিন্তা এসেছে নারীদের কাছ থেকে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্প মেয়েদের এসব সমস্যা চিহ্নিত করে তার সমাধান আহ্বান করে উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প এর আয়োজন করে।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থীর একটি দল দুর্গেশনন্দীনি নামে একটি প্রকল্পের আইডিয়া নিয়ে আসেন। বই পড়ে নয়, কিশোরীরা গেইমের মাধ্যমে তাদের এসব প্রশ্নের উত্তর পাবেন। সারাদেশের ১২টি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ‘উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প ২০১৬’ এর উপজীব্য ও এতে অংশগ্রহণ পদ্ধতি সম্পর্কে ব্যাপক প্রচারণা চালানো হয়। এ প্রচারণায় শিক্ষার্থী মহলে ব্যাপক সাড়া পড়ে এবং অনলাইনে ১২০টিরও অধিক আইডিয়া জমা পড়ে। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ, ইউএনডিপি এর প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন এনজিও এর প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে গোলটেবিল আলোচনার মাধ্যমে কয়েকটি সমস্যা চিহ্নিত করে এসবের সমাধান চাওয়া হয়।

জমা পড়া এসব আইডিয়া থেকে প্রাথমিক বাছাইয়ে ২৬টি পরবর্তী পর্যায়ের বাছাইয়ের জন্য মনোনীত হয়। বিশেষজ্ঞ বিচারকেরা ১৩টি দলকে ‘উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প ২০১৬’ এর চূড়ান্ত পর্যায়ের জন্য নির্বাচিত করেন। এই ১৩টি দলের উদ্ভাবনী আইডিয়াকে বাস্তবতার নিরিখে যাচাই ও পরিমার্জনের উদ্দেশ্যে এটুআই প্রোগ্রামের পক্ষ থেকে বিশেষজ্ঞ পরামর্শদাতাদের নিয়োগ করা হয়। বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সম্মুখে চূড়ান্ত বাছাইয়ে ৯টি দলের ৭টি উদ্ভাবনী ধারণাকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

একসেস টু ইনফরমেশন প্রোগ্রাম ২০১৬ সালের মত এবছরও নারীরা যেসব সমস্যার সম্মুখীন হন তার মধ্য থেকে নির্বাচিত চারটি সমস্যার সমাধান অন্বেষণে উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প ২০১৭ এর কার্যক্রম শুরু করেছে। নারীর বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইম, বয়স্ক নারীদের সমস্যা, অব্যবহূত নারী জনবল এবং প্রমজীবী নারীদের সমস্যা নিয়ে যেকোনো উদ্ভাবনী সমাধানের জন্য এটুআই প্রস্তাব আহ্বান করছে। সেপ্টেম্বর ১৫ এর মধ্যে অনলাইনে এসব সমস্যার সমাধান নিয়ে নারীরা তার উদ্ভাবনী প্রস্তাবনা রাখতে পারবেন। এবারের উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প ২০১৭ এর প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘নারীর দুর্ভোগ নিরসনে নারীর উদ্ভাবন’। http://www.challenge.gov.bd//wic এই লিঙ্কে গিয়ে নারীরা এসব সমস্যার সমাধান দিতে পারবেন। চূড়ান্ত পর্যায়ে নির্বাচিত পাঁচটি উদ্ভাবনী আইডিয়াকে ১ লক্ষ টাকা করে পুরস্কার প্রদান করা হবে।      

লেখক: সহকারী কমিশনার (ভূমি), আমতলী, বরগুনা

 

 

 

 

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৪:২৭
যোহর১১:৫৬
আসর৪:২৩
মাগরিব৬:১০
এশা৭:২৩
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৫
পড়ুন