শরীরের যত্নে নিজেই সচেতন হোন
০৬ নভেম্বর, ২০১৭ ইং
শরীরের যত্নে নিজেই সচেতন হোন
g

 

‘ত্রিশ বছর

পরে নারীদের অস্টিওপোরোসিস সমস্যাটি বেশি দেখা যায়। এটি এক দিনে দূর করা সম্ভব নয়। তবে, সচেতনতার সঙ্গে জীবন পরিচালনা এবং খাদ্যাভ্যাস মানলে কমিয়ে আনা সম্ভব। সেজন্য মেয়েদের নিজেকে সবচেয়ে বেশি সচেতন হতে হবে। ক্যালসিয়ামযুক্ত ও বাড়ির খাবারের প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে। তবে কেউ চাইলে বিভিন্ন ফুড সাপ্লিমেন্ট কিনে খেতে পারে’

 

g

  জিলফুল মুরাদ

 

চাকরির সঙ্গে সংসারটাও দেখতে হয় পুরোদমে। পরিশ্রমের ধকলটা কিছুটা হলেও তো শরীরের ওপর দিয়ে যায়। তাত্ক্ষণিক প্রভাব না দেখা গেলেও একটা বয়স পর অস্টিওপোরোসিস বা হাড়ের ক্ষয়ের প্রভাব বেশ স্পষ্ট হয়ে ওঠে। বিষয়টি আরো উদ্বেগের হয় যখন কিনা এ সম্পর্কে মেয়েরা অনেকে জানেই না। পরিবারের খেয়াল রাখতে গিয়ে নিজের শরীরের যত্ন নিতে বেমালুম ভুলে যান তারা। এ বিষয়ে নারীদের যথেষ্ট সচেতনতার পাশাপাশি দরকার খাদ্যাভ্যাসেও সংযোজন।

ত্রিশ বছর পর মেয়েদের হাড় ক্ষয়জনিত বা অস্টিওপোরোসিস সমস্যাটি বেশি স্পষ্ট হতে থাকে। স্বাভাবিক গঠনে হাড়ে আমিষ, কোলাজেন ও ক্যালসিয়াম থাকে বলে হাড় শক্তিশালী হয়। ৩০ বছর বয়সে হাড়ের পরিমাণ সবচেয়ে বেশি থাকে এবং হাড় মজবুত থাকে। একে হাড়ের পিক পরিমাণ বলে। প্রাকৃতিক নিয়মে ২৮-৩০ বছরের পর থেকে মানব শরীরে হাড়ের ঘনত্ব ও পরিমাণ কমতে থাকে, হাড় দুর্বল এবং ভঙ্গুর হতে থাকে। ফলে হাড় অতি সহজেই ভেঙে যায়। হাড়ের এই হ্রাসের পরিমাণ নির্ভর করে ব্যক্তির স্বাস্থ্য, খাদ্যাভ্যাস, বংশানুক্রম ও শারীরিক পরিশ্রমের ওপর। হাড়ের এই দুর্বল অবস্থা ৫০ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি হয়। চিকিত্সা বিজ্ঞানে একে অস্টিওপোরোসিস বলে।

এর সমাধান নিয়ে সম্প্রতি আমেরিকান সোসাইটি অব বোন অ্যান্ড মিনারেল রিসার্চ (এএসবিএমআর)-এর বার্ষিক অধিবেশনে জেনেভা ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের একদল গবেষক তাদের গবেষণা প্রতিবেদনে জানান, রোজ খাবারের সঙ্গে এক কাপ টক দই খেলেই হাড়ের সমস্যা থেকে মুক্ত থাকা যেতে পারে। ওই গবেষণাপত্রটি নিয়ে এন্ডোক্রিনোলজিস্টরা খুবই আশাবাদী। বিজ্ঞানীরা এই বিষয়ে টানা তিন বছর কাজ করার পর গবেষণাপত্রটি উপস্থাপন করেন। গবেষণাপত্রে সমীক্ষকেরা জানিয়েছেন, যখন নারীর মেনোপজ হয়, তখন হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে যাওয়ায় হাড় দ্রুত ক্ষয়ে যেতে শুরু করে। বহু ক্ষেত্রে এমনই ভঙ্গুর অবস্থা হয় যে, সামান্য ঠোকা লাগলেও হাড় ভেঙে যায়। খাবারের সঙ্গে যে ক্যালসিয়াম শরীরের মধ্যে ঢোকে, সেগুলো শরীরের অন্য জরুরি কাজে খরচ হয়ে যায়। হাড়ে পৌঁছনোর মতো ক্যালসিয়াম শরীরে অনেক সময়েই থাকে না। এই সময়ে খাবারে ক্যালসিয়ামের পরিমাণ কমে গেলে শরীরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজের জন্য হাড় থেকে ক্যালসিয়াম একটু একটু করে চলে যায়। ফলে হাড় আরো দুর্বল ও ক্ষয়িষ্ণু হয়ে পড়ে। গবেষকদের মতে, একমাত্র ক্যালসিয়াম-পুষ্ট খাবারই ওই সমস্যার কিছুটা সমাধান করতে পারে। তা ছাড়া যে সব খাবার শরীরে বেশি পরিমাণে ক্যালসিয়াম শোষণে সাহায্য করে, সেগুলোও খাদ্য তালিকার অন্তর্ভুক্ত করা দরকার। অন্য এক গবেষণায় দেখা গেছে, বাংলাদেশে মেনোপজাল নারীদের তিন জনের একজন হাড় ক্ষয়জনিত সমস্যায় ভোগে। ১৬ থেকে ২৫ বছর বয়সী মেয়েদের ৪০% -এর রয়েছে লো বন ডেনসিটি বা কম হাড় ঘনত্ব। ১০ জনের চার জন অপর্যাপ্ত ক্যালসিয়াম গ্রহণ করে এবং তারা ভিটামিন ডি অপর্যাপ্ততায় ভোগে। ত্রিশ বছর পর মানুষের হাড়ের গঠন কমতে থাকে এবং একই সঙ্গে হাড় ক্ষয়/ভাঙন চলতে থাকে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অ্যাপোলো হাসপাতালের ডায়েটিক্স বিভাগের চিফ ডায়েটিশিয়ান সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, ‘ত্রিশ বছর পরে নারীদের এই সমস্যাটি বেশি দেখা যায়। এটি এক দিনে দূর করা সম্ভব নয়। তবে, সচেতনতার সাথে জীবন পরিচালনা এবং খাদ্যাভাস মানলে কমিয়ে আনা সম্ভব। সেজন্য মেয়েদের নিজেকে সবচেয়ে বেশি সচেতন হতে হবে। ক্যালসিয়ামযুক্ত ও বাড়ির খাবারের প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে। তবে কেউ চাইলে বিভিন্ন ফুড সাপ্লিমেন্ট কিনে খেতে পারে।’ পরিবারের অন্য সদস্যকেও এ বিষয়ে খেয়াল রাখার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

বাজারে মেয়েদের হাড় ক্ষয়জনিত রোগের উপকারী কিছু ফুড সাপ্লিমেন্ট পাওয়া যায়। এর মধ্যে অন্যতম ওমেন্স হরলিক্স। মাইক্রোনিউট্রেন্টস/ভিটামিন এবং মিনারেল সমৃদ্ধ হরলিক্স বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা স্বীকৃত। এটি ১৯-৫০ বছর বয়সী নারীদের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। এছাড়াও চল্লিশোর্ধ্ব নারীদের জন্য হাই ক্যালসিয়াম লো ফ্যাট মিল্ক পাউডার মার্কস গোল্ড পাওয়া যায়। এটি নারীদের হাড় ক্ষয় রোধ করে। তবে, এসব ফুড সাপ্লিমেন্ট খাবারের বিকল্প নয়। বাড়তি পুষ্টির জন্য দৈনিক খাবারের সঙ্গে নারীরা এসব ফুড সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করতে পারে। এ সব কিছুর পরও নারীদের সচেতনতা ও বাড়ির খাবারের কোনো বিকল্প নেই বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৬ নভেম্বর, ২০২০ ইং
ফজর৪:৫০
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪১
মাগরিব৫:২০
এশা৬:৩৫
সূর্যোদয় - ৬:০৮সূর্যাস্ত - ০৫:১৫
পড়ুন