বিভিন্ন স্থানে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন যারা
ইত্তেফাক ডেস্ক০৩ মার্চ, ২০১৬ ইং
কুষ্টিয়ার মিরপুরে ১৪ ও বরগুনার পাথরঘাটায় ১জনসহ ১৫জন প্রার্থী তাদের প্রার্থীতা ফিরে পেয়েছেন। ইত্তেফাক প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর।

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় ১৪ জন প্রার্থী সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার নিকট আপিল করে তাদের প্রার্থিতা ফেরত পেয়েছেন। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২ জন, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের ৪ জন ও সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে ৮ জন প্রার্থী রয়েছেন।

প্রার্থিতা ফেরত পেয়েছেন তারা হলেন, সদরপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের জমির উদ্দিন ও বহলবাড়ীয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী বিএনপির বিদ্রোহী সাইদুর রহমান খান। এ ছাড়াও সদরপুর ইউনিয়নের সংরক্ষিত ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের প্রার্থী শাহানাজ মস্তফা, বহলবাড়ীয়া ইউনিয়নের সংরক্ষিত ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী আল্লাদী খাতুন, ছাতিয়ান ইউনিয়নের সংরক্ষিত ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী কল্পনা খাতুন ও ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী গোলাপী খাতুন, মালিহাদ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য প্রার্থী আরজ উদ্দীন, ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য প্রার্থী জয়েন উদ্দিন, ৪নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য প্রার্থী ছুরাপ আলী, বারুইপাড়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য আজাদ, ৬নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য প্রার্থী রহমত, ৯নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য সুলতান আলী, আমলা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য আব্দুল আলিম সুরুজ, আলিফ হোসেন।

হাইকোর্টের আদেশে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন বিএনপির প্রার্থী

বরগুনার পাথরঘাটা থানার চরদুয়ানী ইউনিয়ন পরিষদের বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. কামরুল ইসলামের মনোনয়ন বৈধ করে তাকে প্রতীক বরাদ্দের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে দায়ের করা এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ মঙ্গলবার এ আদেশ দেন। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি উপজেলা রিটার্নিং অফিসার মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করেন। এর বিরুদ্ধে কামরুল জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে আপিল করলে সেখানেও তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এরপর উচ্চ আদালতে কামরুল মনোনয়ন পত্রের বৈধতা চেয়ে একটি রিট আবেদন করেন। সে রিটের শুনানি করে মঙ্গলবার আদালত কামরুল ইসলামের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেন এবং তাকে প্রতীক বরাদ্দের নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।

হাইকোর্টের আদেশে জাপার ৩ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র গ্রহণ

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা জানান, ফুলপুরে জাতীয় পার্টি জাপার ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন হাইকোর্টের আদেশে বুধবার গ্রহণ করেছে স্থানীয় রিটানিং কর্মকর্তা। নির্ধারিত সময়ের পর মনোনয়ন দেয়ায় ফুলপুর, সিংহশ্বের ও বালিয়া ইউনিয়নে জাতীয় পার্টি -জাপার ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেনি রিটার্নিং কর্মকর্তা। পরে প্রার্থীরা হাইকোর্টে গেলে মঙ্গলবার হাইকোর্ট সংশি­ষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তাকে তাদের মনোনয়ন গ্রহণের আদেশ দেয়। এ আদেশ পেয়ে ফুলপুরে মাহফুজুর রহমান, সিংহেশ্বরে এমদাদুল হক ও বালিয়া ইউনিয়নে  আলকাছ উদ্দিনের মনোনয়ন গ্রহণ করেন স্থানীয় রিটানিং কর্মকর্তা। ২২ ফেব্রুয়ারি ছিল মনোনয়নপত্র গ্রহণের শেষ দি।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩ মার্চ, ২০২১ ইং
ফজর৫:০৪
যোহর১২:১১
আসর৪:২৪
মাগরিব৬:০৫
এশা৭:১৮
সূর্যোদয় - ৬:১৯সূর্যাস্ত - ০৬:০০
পড়ুন