জঙ্গি স্বামীর নির্যাতনেই আগৈলঝাড়ার শিরিন আক্তারের মৃত্যু
পুলিশ হেড কোয়ার্টারে তদন্ত রিপোর্ট
আইজিপি একেএম শহিদুল হক বরিশালের আগৈলঝাড়ার শিরিন আক্তার পাখির লাশের ময়নাতদন্ত না করে দাফনের ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দেয়ার পর আগৈলঝাড়া থানা পুলিশ ঘটনার তদন্ত করে জঙ্গি স্বামীর নির্যাতনেই পাখির মৃত্যু হয়েছে বলে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার মাধ্যমে পুলিশ হেড কোয়ার্টারে রিপোর্ট প্রেরণ করেছে।

সূত্র মতে, নিহতের ভাই আগৈলঝাড়ার কালুপাড়া গ্রামের মনির উদ্দিন হাফিজ জানান, তার বোনকে গৌরনদীর চাঁদশী গ্রামের রুহুল আমিন খোকনের সাথে বিয়ে দেয়ার পর থেকে খোকন ও তার পরিবারের সদস্যরা মোটা অংকের টাকা যৌতুক দাবি করে। এ টাকা দিতে না পারায় প্রায়ই পাখিকে নির্যাতন করা হত। সর্বশেষ ২৪ মার্চ খোকন পাখিকে অমানুষিক নির্যাতন করে। গুরুতর আহত পাখি বেগমকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিত্সাধীন অবস্থায় ১৫ এপ্রিল পাখি মারা গেলে খোকন লাশ ফেলে পালিয়ে যায়।

সূত্র জানায়, নিহত পাখির স্বামী প্রথমে তাবলিগ জামায়াতের সাথে জড়িত ছিল। পরে সে জঙ্গি গোষ্ঠীর সাথে জড়িয়ে পড়ে।

সূত্র আরো জানায়, পাখির মৃত্যুর পর ওইদিনই ঢাকার শাহবাগ থানায় এসআই মোস্তাফিজ সাধারণ ডায়েরি করেন। লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হলেও রহস্যজনক কারণে ময়নাতদন্ত হয়নি। নিহতের ভাই মনির অভিযোগ করেন, এসআই মোস্তাফিজ তাকে ও তার অপর এক বোন জামাতাকে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে সাদা কাগজে মুচলেকা রেখে লাশ বাড়ি নিয়ে দাফন করার নির্দেশ দেন। পরে পাখির লাশ তার বাবার বাড়ি কালুপাড়া গ্রামে দাফন করা হয়।

এ নিয়ে বিভিন্ন দৈনিকে সংবাদ প্রকাশের পর আইজিপি ঘটনা তদন্তে আগৈলঝাড়া থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন। পরে পুলিশের তদন্তে নির্যাতনেই গৃহবধূ শিরিন আক্তার পাখির মৃত্যুর চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ জুলাই, ২০২১ ইং
ফজর৪:০২
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৪৭
এশা৮:০৮
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:৪২
পড়ুন