লামায় উচ্ছেদ আতঙ্কে ১৩ দরিদ্র পরিবার
লামা উপজেলার দুর্গম পাহাড়ি সরই ইউনিয়নের ডলুছড়ি এলাকায় প্রভাবশালী কর্তৃক ১৩টি দরিদ্র কৃষক পরিবার উচ্ছেদ আতঙ্কে ভুগছে। নিজেদের বসতি রক্ষার জন্য দীর্ঘ ১ যুগ ধরে লড়াই করে আসছে ২৬টি পরিবার। প্রভাবশালীদের মামলা হামলায় জর্জরিত হয়ে ইতোমধ্যে ১৩টি পরিবার ঘরছাড়া হলেও বাকি ১৩টি পরিবার কোনোমতে এখনো টিকে রয়েছে। তবে সম্প্রতি তাদের বিরুদ্ধে প্রভাবশালীরা আবার মামলা হামলা শুরু করায় তারা সংবাদ সম্মেলন করেছেন। গতকাল শনিবার সকালে  এলাকার একটি হোটেলে আয়োজিত এই সম্মেলনে বিচারপ্রার্থী ১৩টি দরিদ্র পরিবারের নারী পুরুষগণ উপস্থিত ছিলেন।

সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য ও ঘটনাস্থল পরিদর্শনে জানা গেছে, বিগত ৩০ বছর ধরে ওই এলাকায় ২৫টি কৃষক পরিবার প্রায় ৬০ একর বনভূমিতে বসতি স্থাপন করে আসছিল। সেখানে তাদের লাগানো গাছ বাগান, বসতবাড়ি সবই ছিল। কিন্তু ২০০৫ সালে লোহাগাড়া এলাকার মোহাম্মদ আলমগীর ও ফরিদুল আলম মহেশখালী এলাকার মোহাম্মদ রবিউল নামে এক সন্ত্রাসীকে ব্যবহার করে জনৈক সিরাজুল ইসলামের লিজ মামলা মূলে ২৫ একর জায়গার কাগজ নিয়ে জায়গাগুলো তাদের দাবি করেন। তাদের লাঠিয়াল বাহিনীর কয়েক দফা হামলা এবং মামলায় অতিষ্ঠ হয়ে ১৩টি পরিবার তাদের দখলীয় জমি ছেড়ে অন্যত্র চলে যায়। এরপর বাকী যারা আছেন তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ইং
ফজর৫:১০
যোহর১২:১৩
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০১
এশা৭:১৪
সূর্যোদয় - ৬:২৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৬
পড়ুন