যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়ে তাড়িয়ে দিল স্বামী
১০ আগষ্ট, ২০১৭ ইং
রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা

দাবিকৃত যৌতুকের টাকা না পেয়ে মাদকাসক্ত স্বামী নুরুজ্জামানসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন তামান্না (২০) নামে এক গৃহবধূকে প্রচণ্ড মারধর করে এবং শরীরে সিগারেটের আগুনের ছ্যাঁকা দিয়ে নির্যাতন চালিয়ে বাড়ি থেকে বিতাড়িত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার দুপুরে উপজেলার ছাতিয়ান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গৃহবধূ তামান্না আক্তার উপজেলার কেউডালা এলাকার আব্দুল হাকিমের মেয়ে।

তামান্না জানান, বুধবার দুপুরে মাদকাসক্ত স্বামী নুরুজ্জামান মাদক সেবনের জন্য তার বাবার বাড়ি থেকে মোটা অংকের যৌতুক এনে দিতে বলেন। তামান্না যৌতুকের টাকা এনে দিতে পারবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে স্বামী নুরুজ্জামান, শাশুড়ী রশিদা, ননাশ হাসু ও খোশসহ আরো কয়েকজন মিলে তামান্না আক্তারকে ঘরের ভেতর আটকে নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে নুরুজ্জামান তামান্নার শরীরে সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। যৌতুকের টাকা নিয়ে আসলে তবেই তাকে বাড়িতে ঢুকতে দেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেয় তারা। পরে তামান্নার চিত্কারে আশ-পাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। রূপগঞ্জ থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, এব্যাপারে তদন্ত মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দুই নারীকে হাতুড়িপেটা, একজনকে পিটিয়ে জখম

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পৃথক স্থানে পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন নারীসহ তিনজনকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার সকালে উপজেলার পাইশখা ও টেকপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পাইশখা এলাকার জাহানারা বেগম জানান, একই এলাকার সামসুর সঙ্গে তাদের দীর্ঘ দিন ধরে এক খণ্ড জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরেই সামসু, উজ্জল, রশিদসহ অজ্ঞাত ৪/৫ জন জাহানারার বাড়িতে প্রবেশ করে তাকে ও তার বোন রেহেনাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। তাদের চিত্কারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষের লোকজন পালিয়ে যায়। পরে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

অপরদিকে হাটাব টেকপাড়া এলাকার আহত আল-আমিন জানান, তার সঙ্গে একই এলাকার শামিন, সেলিম, মোমনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। বুধবার সকালে কাজ শেষ করে বাসায় ফেরার পথে প্রতিপক্ষের লোকজন আল-আমিনের পথরোধ করে এবং তাকে এলোপাতাড়িভাবে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। তার চিত্কারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষের লোকজন পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা আল-আমিনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। এ ব্যাপারে অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা তাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেন।

রূপগঞ্জ থানার ওসি ইসমাইল হোসেন জানান, এ ধরনের পৃথক অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১০ আগষ্ট, ২০২০ ইং
ফজর৪:১১
যোহর১২:০৪
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৩৯
এশা৭:৫৭
সূর্যোদয় - ৫:৩২সূর্যাস্ত - ০৬:৩৪
পড়ুন