ওয়েজবোর্ড নিয়ে অর্থমন্ত্রীর বক্তব্য অগ্রহণযোগ্য ----- বিএফইউজে
১০ আগষ্ট, ২০১৭ ইং
বাসস

নবম ওয়েজবোর্ড সম্পর্কে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের বক্তব্যকে অনভিপ্রেত, অনাকাঙ্ক্ষিত ও অগ্রহণযোগ্য বরে প্রত্যাখ্যান করেছে সাংবাদিক সমাজ। গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) এক জরুরি সভায় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, বিভ্রান্তিকর তথ্যের ভিত্তিতে অর্থমন্ত্রী এ ধরনের বক্তব্য দিয়েছেন।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিএফইউজে সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল সভায় সভাপতিত্ব করেন। সভায় অর্থমন্ত্রীর বক্তৃতার প্রেক্ষিতে উপস্থিত সাংবাদিকদের তাত্ক্ষণিক সাহসী প্রতিক্রিয়ার জন্য ধন্যবাদ জানানো হয় এবং অর্থমন্ত্রীর বিভ্রান্তিকর তথ্যের জবাব দেওয়া এবং সাংবাদিক সমাজের অবস্থান তুলে ধরার জন্য শিগগিরই সংবাদ সম্মেলন করার সিদ্ধান্ত হয়। বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়াকে স্বাগত জানানো হয়। সভায় আবারো নির্ধারিত সময়সীমা ১৫ আগস্টের মধ্যে নবম ওয়েজবোর্ড গঠনের দাবি জানানো হয়।

ওয়েজবোর্ড সম্পর্কে অর্থমন্ত্রীর বক্তব্য অত্যন্ত নিন্দনীয় ও দুঃখজনক

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত সংবাদপত্র শিল্পের সাংবাদিক শ্রমিক-কর্মচারীদের ন্যায় সঙ্গত দাবি নবম ওয়েজবোর্ড সম্পর্কে যে বক্তব্য দিয়েছেন তার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশ সংবাদপত্র কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি মোঃ মতিউর রহমান তালুকদার ও মহাসচিব মোঃ খায়রুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ ফেডারেল ইউনিয়ন অব নিউজপেপার প্রেস ওয়ার্কার্স সভাপতি আলমগীর হোসেন খান ও মহাসচিব মোঃ কামাল উদ্দিন।

এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, সংবাদপত্র মালিক সংগঠন নোয়াবের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী সংবাদপত্র শিল্পের কর্মচারীদের ন্যায় সঙ্গত মৌলিক অধিকারসহ ওয়েজবোর্ড সম্পর্কে যে আপত্তিকর বক্তব্য দিয়েছেন তা অত্যন্ত দুঃখজনক, অনাকাঙ্ক্ষিত নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমানে সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের পে-স্কেলে বেতন ভাতা  সংবাদপত্রে কর্মরত  কর্মচারীদের  চেয়ে অনেক বেশি। ৮ম ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদ ঘোষণার পর প্রায় ৫ বত্সর অতিবাহিত হতে চলেছে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১০ আগষ্ট, ২০২০ ইং
ফজর৪:১১
যোহর১২:০৪
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৩৯
এশা৭:৫৭
সূর্যোদয় - ৫:৩২সূর্যাস্ত - ০৬:৩৪
পড়ুন