আউটার স্টেডিয়াম এখনও পানিতে তলিয়ে
খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
আউটার স্টেডিয়াম এখনও পানিতে তলিয়ে
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের বাইরের অংশ তথা আউটার স্টেডিয়াম এখনো পানিতে তলিয়ে রয়েছে। স্টেডিয়ামের বাইরে পানি নিষ্কাশনের উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন পাম্পও এখন বন্ধ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামটি ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে ফতুল্লা রামারবাগ এলাকায় অবস্থিত। নারায়ণগঞ্জ ওসমানী স্টেডিয়াম নামে পরিচিত এ স্টেডিয়ামটির ধারণ ক্ষমতা ২৫ হাজার। এ স্টেডিয়ামে দুইটি টেস্ট, ১০টি একদিনের আন্তর্জাতিক খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।’

সরেজমিনে স্টেডিয়ামের ভিতরে ঘুরে দেখা গেছে, স্টেডিয়ামের প্রধান ফটক ছাড়া বাকি ৪টি গেটের মুখে পানি জমে আছে। মাঠের পাশে লামাপাড়া এলাকার বাসিন্দা শাহেদ আহমেদ বলেন, ‘আধা কিলোমিটারের দূরত্বে সব ডাইং, গার্মেন্ট কারখানা আছে। এসব ডাইং কারখানার ময়লা পানি ও লামাপাড়া ৯নং ওয়ার্ড এবং রামারবাগ এলাকার সুয়ারেজের পানি মাঠের পশ্চিম দিকে ড্রেন দিয়ে বের হয়ে যায়। এ ড্রেন অনেক সরু হওয়ায় ভালোভাবে পানি নিষ্কাশন হয় না। কয়েক ঘণ্টার ভারী বৃষ্টিপাত হলে এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। যার ফলে মাঠের ভেতরেও পানি জমে যায়।’ তিনি আরো বলেন, ‘এ ড্রেনগুলো নতুন করে সংস্কার করা হলে কিংবা ড্রেনগুলো দ্রুত পরিষ্কার করলে কিছুটা পানি কমার সম্ভাবনা রয়েছে।

রামারবাগ এলাকার বাসিন্দা আলম জানান, ‘গত কয়েক বছর আগে রামারবাগ এলাকা অনেক নিচু ছিল। পরবর্তীতে এলাকাবাসীর জন্য রাস্তা ১ থেকে দেড় ফুট উঁচু করা হয়। কিন্তু এতে করে স্টেডিয়াম থেকে পানি নিষ্কাশনের ড্রেনটি নিচুই হয়ে গেছে। যার ফলে এসব এলাকায় ও মাঠে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়।’

খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের (ফতুল্লা স্টেডিয়াম) কর্মকর্তা বাবুল মিয়া বলেন, ‘ডিএনডির জলাবদ্ধতার কারণে মূলত স্টেডিয়ামের আশপাশে পানি জমে আছে।’

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৪:২৭
যোহর১১:৫৬
আসর৪:২৩
মাগরিব৬:১০
এশা৭:২৩
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৫
পড়ুন