সিদ্ধিরগঞ্জে স্বর্ণের দুই দোকানে ডাকাতি
৪৫৫ ভরি অলঙ্কার ও সাড়ে ৩ লাখ টাকা লুট
১১ মার্চ, ২০১৮ ইং
সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা

সিদ্ধিরগঞ্জে স্বর্ণের দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা দুটি স্বর্ণের দোকান থেকে ৪৫৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ সাড়ে ৩ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে গেছে। গত শুক্রবার দিবাগত রাতে সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড় এলাকার হাজী আহসান উল্যাহ সুপার মার্কেটের ক্রাউন ও নদভী জুয়েলার্স নামক দু’টি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতির এ ঘটনা ঘটে। ডাকাতরা নৈশ প্রহরীকে নেশার দ্রব্য খাইয়ে অচেতন করে দোকানের সাটার ভেঙে লুটপাট চালায়। মার্কেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিবুল্লাহ জানান, ডাকাতরা তার অফিস কক্ষের তালা ভেঙে সি সি ক্যামেরার রেকর্ডার ও নগদ ১ লাখ টাকা নিয়ে গেছে।

জানা যায়, ডাকাতরা প্রথমে হাজী আহসান উল্যাহ সুপার মার্কেটের প্রহরী আব্দুল হক, সিরাজ, নুরুল হক, আবদুল কাদের, ঝাড়ুদার শাহনাজ ও ফরিদা বেগমকে নেশা দ্রব্য খাইয়ে অচেতন করে ফেলে। এরপর ডাকাত দল দুটি স্বর্ণের দোকানের সাটার ভেঙে ও কেঁচি গেট কেটে দোকান দুটিতে লুটপাট চালায়। ডাকাতরা দু’টি দোকান থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কারসহ আড়াই কোটি টাকার মালামাল লুটে নেয়।

খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) মনিরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। নৈশ প্রহরী আঃ হক ও সিরাজকে অচেতন অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ও ঝাড়ুদার শাহনাজ ও ফরিদাকে নারায়ণগঞ্জ খানপুরের ৩শ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ক্রাউন জুয়েলার্সের মালিক রাজু জানান, ডাকাতরা তার দোকান থেকে ১০৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ ১ লাখ ১৬ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। অপরদিকে নদভী জুয়েলার্সের মালিক রানা জানান, তার দোকান থেকে প্রায় সাড়ে ৩শ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও দেড় লক্ষাধিক টাকা লুট হয়েছে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (সার্বিক) আব্দুস সাত্তার জানান, চোরেরা পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। আমরা ঐ মার্কেটের অন্যান্য সি সি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে চোরদের গ্রেফতার ও স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছি। তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ মার্চ, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৬
যোহর১২:০৯
আসর৪:২৭
মাগরিব৬:০৯
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৬:০৪
পড়ুন