দোয়ারায় দুই শিশুর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ৮০
০৬ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
ছাতক (সুনামগঞ্জ) সংবাদদাতা

দোয়ারায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বর্তমান ও সাবেক চেয়ারম্যানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে নারীসহ অন্তত ৮০ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত ২৬ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুই শিশুর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। গত বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা সদর ইউনিয়নের নৈনগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, একই গ্রামের বাসিন্দা উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক ও ইউপি চেয়ারম্যান হাজী আব্দুল বারী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল খালেকের সমর্থকদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। গতকাল গ্রামের দুই শিশুর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে সদর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারী ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল খালেকের পক্ষের লোকজন তুমুল সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে দেশীয় অস্ত্র, কাঁচের বোতল ও ব্যাপক ইটপাটকেল ব্যবহার করা হয়। সংঘর্ষ আশপাশ এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ছাতক-দোয়ারাবাজার সড়কের নৈনগাঁও এলাকা পরিণত হয় রণক্ষেত্রে। থানা পুলিশ স্থানীয় লোকজনদের সহায়তায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। গুরুতর আহত নিজাম উদ্দিন (২৬), সাইফুর রহমান (১৯), আনিছা বেগম (৩৫), আকাশ মিয়া (১৮), লিয়াকত আলী (২৮), সুজন মিয়া (২০), সফিকুল ইসলাম (২১), সাঈদ মিয়া (২৬), সুহেল আহমদ (২২), আব্দুল মছব্বির (৪৫), আলিম উদ্দিনসহ (৫০) ২৬ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের দোয়ারা সদর হাসপাতালে চিকিত্সা দেওয়া হয়েছে। তবে এ বিষয়ে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারী ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল খালেকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে দুই জনই কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হননি। দোয়ারাবাজার থানার ওসি সুশীল চন্দ্র দাস ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ব্যাপারে কোনো পক্ষেরই লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৬ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩৬
যোহর১১:৪৭
আসর৪:০৩
মাগরিব৫:৪৫
এশা৬:৫৬
সূর্যোদয় - ৫:৫১সূর্যাস্ত - ০৫:৪০
পড়ুন