সন্দ্বীপ চ্যানেলে নতুন চর জাহাজভাঙা শিল্পে হুমকি
০৬ অক্টোবর, ২০১৮ ইং

সীতাকুণ্ড সংবাদদাতা

সীতাকুণ্ড এলাকাকে ঘিরে কর্ণফুলী মোহনার সন্দ্বীপ চ্যানেলের সাগরে প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে চর জেগে উঠায় জাহাজ ভাঙা শিল্পের স্ক্র্যাপ জাহাজ আমদানি হুমকির মুখে পড়েছে।

শিপব্রেকিং এসোসিয়েশন নেতৃবৃন্দ ও জাহাজ ভাঙা ইয়ার্ড মালিকরা জানান, এই শিল্প থেকে সরকার বার্ষিক ১২শ’ কোটি টাকারও বেশি রাজস্ব আয় করে । কিন্তু সম্প্রতি সময়ে উপজেলার ফৌজদার হাট থেকে সোনাইছড়ি ইউনিয়নের শীতলপুর ১০ কিঃ মিঃ পর্যন্ত বিভিন্ন স্পটে সাগরে আঁকা বাঁকা হয়ে চর জেগে উঠে। এটি দিনদিন আরো বড় হচ্ছে। এ অবস্থায় সীতাকুণ্ড শিপব্রেকিং ইয়ার্ডে জাহাজ আমদানি বিঘ্নিত হচ্ছে বলে জানান আরেফিন শিপব্রেকিং ইয়ার্ডের মালিক কামাল উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, এ বিষয়ে গত শনিবার সকালে চট্টগ্রাম নগরীর আগ্রাবাদ এলাকায় অবস্থিত দ্যা সিমনি রেস্টুরেন্টে  বাংলাদেশ শিপ ব্রেকার্স এ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মোঃ আবু তাহের এর সভাপতিত্বে এক মতবিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সাগরে চর জেগে উঠার বিষয়টি ও  জাহাজ আমদানি সংক্রান্তসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা  হয়। এতে বলা হয়, বিশাল এলাকা জুড়ে যে চর সীতাকুণ্ড অংশে জেগে উঠেছে তা জাহাজ ভাঙা শিল্পের জন্য বড় রকমের হুমকি । এভাবে চর উঠতে শুরু করলে সামনে জাহাজ আমদানি করা দুরূহ হয়ে পড়বে। ফলে বিপুল সংখ্যক লোক বেকার হয়ে পড়বে। এ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট শিল্পপতি শওকত আলী চৌধুরী, ম্যাক কর্পোরেশনের মালিক মাষ্টার আবুল কাসেম,আবুল হাসেম ও ইঞ্জিনিয়ার মহসিনসহ সকল ইয়ার্ড মালিক উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তারা বলেন, বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে মোকাবিলা করা না গেলে আগামীতে আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করবে এটি।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৬ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩৬
যোহর১১:৪৭
আসর৪:০৩
মাগরিব৫:৪৫
এশা৬:৫৬
সূর্যোদয় - ৫:৫১সূর্যাস্ত - ০৫:৪০
পড়ুন