পাইওনিয়ার্স ২০১৬ :বিজনেস কেস সমাধানে নতুনদের আইডিয়াবাজী
১৪ নভেম্বর, ২০১৬ ইং
পাইওনিয়ার্স ২০১৬ :বিজনেস কেস সমাধানে নতুনদের আইডিয়াবাজী
বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে নিজের ক্যারিয়ারকে সংহত করার জন্য নিজের ঝুলিতে থাকা প্রয়োজন বৈচিত্র্যময় দক্ষতা আর নানামুখী অভিজ্ঞতা। আদার ব্যাপারী হলেও টিকে থাকার তাগিদে আপনাকে জাহাজের খোঁজখবরও রাখতে হবে বৈকি। তাই প্রথমবারের মতো বুয়েটে অনুষ্ঠিত হলো বুয়েটিয়ানদের জন্য বিজনেস কেস সমাধান প্রতিযোগিতা ‘পাইওনিয়ার্স ২০১৬’।গত ৮ নভেম্বর ছিল বুয়েট এন্টারপ্রেনারশিপ ডেভেলপমেন্ট ক্লাব আয়োজিত এই প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে। দেশের সেরা মেধাবী মুখগুলোকে ব্যবসা-বাণিজ্যের সঙ্গে পরিচিত করার উদ্দেশ্যে আয়োজিত এই  প্রতিযোগিতার স্পন্সর হিসেবে ছিল লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেড। মোট ৩ ধাপে আয়োজিত এই প্রতিযোগিতার প্রথম অনলাইন রাউন্ডে অংশ নেয় ১২২টি দল। এর মধ্যে থেকে নির্বাচিত ৩০টি টিম উঠে আসে দ্বিতীয় রাউন্ডে। কঠিন বাধা পেরিয়ে ৫টি দল—টিম স্টেরেডিয়ান, টিম ইনজিনিয়াস, টিম ফিনিক্স, বুয়েট টাইকুন ও টিম অরিষ্ঠ আলট্রা ফাইনালে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ পায়। বুয়েট অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রাণবন্ত এই গ্র্যান্ড ফিনালেতে প্রত্যেকটি দল আলাদাভাবে প্রদত্ত বিজনেস কেসের নিজস্ব সমাধান উপস্থিত বিচারক এবং দর্শকদের কাছে উপস্থাপন করে। ১০ মিনিটের পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের পর প্রতিটি দল মুখোমুখি হয় বিচারক প্যানেলের সামনে, ১০ মিনিটের প্রশ্নোত্তর পর্বের জন্য।

অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বিচারকদের রায়ে চ্যাম্পিয়ন ঘোষিত হয় টিম ফিনিক্স। এই দলের সদস্যরা হলেন মনোয়ার আনজুম রাশিক, অনুরত প্রভা হূদি ও দীপ্ত দাস। চ্যাম্পিয়ন হিসেবে তারা ৫০ হাজার টাকা প্রাইজমানি জেতার গৌরব অর্জন করে। প্রথম রানার্সআপ হয় তানভীর আহমেদ তমাল, ইমতিয়ার জালাল নিলয় ও শাদমান সাকিবের সমন্বয়ে গঠিত বুয়েট টাইকুন। আর মোহাইমিনুল ইসলাম, শাফিক চৌধুরী ও মো. শিহাবুজ্জামানদের টিম ইনজিনিয়াস দ্বিতীয় রানার্সআপ ঘোষিত হয়। প্রথম রানার্সআপ টিম ৩০ হাজার টাকা এবং ২য় রানার্সআপ টিম ১০ হাজার টাকা প্রাইজমানি অর্জনের কৃতিত্ব লাভ করে। ফাইনালিস্টরা আয়োজনের প্রতি মুগ্ধতা প্রকাশ করে জানান, বুয়েটে এই ধরনের আয়োজন সত্যি প্রশংসার দাবিদার। এই প্রতিযোগিতা প্রকৌশল শিক্ষার্থীদের ব্যবসায়িক দৃষ্টিভঙ্গিতে চিন্তার প্রসার ও সমস্যা সমাধানে দক্ষ করে তুলবে বলে তারা প্রত্যাশা করেন।  

অনুষ্ঠানে বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মো. মাসুদ খান (সিএফও, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেড), এটিএম নাইমুল বাসেত (স্ট্র্যাটেজিক অ্যান্ড আইটি ডিরেক্টর, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেড ), জনাব মাহমুদুল হাসান সোহাগ (চেয়ারম্যান অ্যান্ড সিইও, অন্যরকম গ্রুপ), ড. রাকিবুল হোসেন (সহযোগী অধ্যাপক, পুরকৌশল বিভাগ, বুয়েট)। অতিথি বক্তা হিসেবে অনুষ্ঠানে যোগদান করেন ‘১০ মিনিট স্কুল’-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও আয়মান সাদিক। বুয়েটে এই ধরনের আয়োজনে তিনি উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন এবং প্রতিযোগীদের প্রতি তার শুভকামনা জানান। অনুষ্ঠান শেষে প্রতিযোগীদের হাতে ক্রেস্ট ও প্রাইজমানি তুলে দেন লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেডের সিএফও মো. মাসুদ খান।

 

 

 

 

 

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৮
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পড়ুন