সবুজ দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করছে ওয়ার্কস ফর গ্রিন
০৪ জুন, ২০১৮ ইং
সবুজ দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করছে ওয়ার্কস ফর গ্রিন
>> মাজহারুল ইসলাম তামিম

 

শুরুটা ২০১৪ সালে, একদল তরুণ সাংবাদিকের হাত ধরে। তারা অনুধাবন করেন জলবায়ু পরিবর্তনের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে তরুণদেরকেই প্রথমে এগিয়ে আসতে হবে। সেই চিন্তা বাস্তবরূপ লাভ করে ‘ওয়ার্কস ফর গ্রিন বাংলাদেশ’ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে। সবুজ দেশ গড়ার স্বপ্নকে সঙ্গী করে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে কাজ শুরু করে সংগঠনটি। দেশব্যাপী শিক্ষার্থীদেরকে পরিবেশ উন্নয়নে তাদের ভূমিকা জানানো এবং জনসচেতনায় যুক্ত করার মাধ্যমে সংগঠনটি তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তাদেরকে নিয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি, জলবায়ু পরিবর্তনের হুমকি বিষয়ক কর্মশালা এবং পরিবেশ সুরক্ষায় কাজ করে চলেছে। পরিবেশ রক্ষার কাজে তারা প্রথম মাঠে নামে ২০১৪ সালের ১৪ এপ্রিল। নববর্ষের দিন একঝাঁক তরুণ-তরুণীকে সাথে নিয়ে ধানমন্ডি ও তার আশপাশের এলাকায় পরিচ্ছন্নতা অভিযানে নামে সংগঠনটি। এরপর একই বছর ১৯ সেপ্টেম্বর পিপলস ক্লাইমেট মার্চের মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতিবাদ জানায় তারা। গতবছর সিরাজগঞ্জে বন্যার্ত প্রায় দেড়শ পরিবারের মাঝে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করে। এছাড়াও গাইবান্ধা জেলার হাতিবান্ধা উপজেলায়, দিনাজপুর জেলার খানসামায়, নোয়াখালি জেলার বিভিন্ন এলাকাতে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে। কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন এলাকার মানুষ যত্রতত্র গাছ কেটে ফেলত। এই বিষয়ে জনসচেতনতা গড়ে তুলতে ওইসব এলাকায় মাইকিং করে, লিফলেট বিতরণ করে। এভাবেই নানা সামাজিক কর্মকাণ্ডে পরিচালিত হচ্ছে সংগঠনটি।

ওয়ার্কস ফর গ্রিন বাংলাদেশ হলো তারুণ্যনির্ভর একটি পরিবেশবাদী সংগঠন। পরিবেশের উন্নয়নে প্রকৃত ফলাফলের জন্য তৃণমূলের স্বাধীন গবেষণামূলক কার্যক্রম, বাস্তবসম্মত পরিকল্পনা, শক্তিশালী মানসিক সমর্থন ইত্যাদি গুণাবলিকে সমন্বিত করার চেষ্টা করছে সংগঠনটি। এই আন্দোলন গড়ে তোলার সর্বোত্কৃষ্ট পথ হলো তরুণদের হাতে পরিবেশ উন্নয়নের হাতিয়ার তুলে দেওয়া। এটি সংকটাপন্ন পরিবেশকে সুন্দর করবে এবং চারপাশের সকলকে কাজ করতে অনুপ্রেরণা জোগাবে। জলবায়ু পরিবর্তনকে একটি জাতীয় সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করে এই বিষয়ে ব্যাপকভাবে জনগণকে অন্তর্ভুক্ত করা তাদের মূল উদ্দেশ্য।

প্রথমদিকে এই সংগঠনকে পরিচালনা করতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে। নানা প্রতিকূলতা অতিক্রম করে বর্তমানে ডব্লিউজিবির ১০টির মতো আঞ্চলিক শাখায় ২০০ জনের বেশি স্বেচ্ছাসেবক রয়েছে। দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় কাজ করছে সংগঠনের সদস্যরা। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রাশেদ মোজাম্মেল বলেন, ‘আমাদের দেশের মানুষ একদম সচেতন নয়। বিনা প্রয়োজনে যত্রতত্র গাছ কেটে ফেলে অথচ এর বিপরীতে গাছ লাগাতে চায় না। যত্রতত্র পরিবেশ নোংরা করছে কিন্তু পরিষ্কার করছে না। আমাদের সীমিত সামর্থ্যের মধ্যে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি এই জায়গাগুলোতে মানুষকে সচেতন করে তুলতে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখতে পারে পরিবারের তরুণ সদস্যরা।’

ডব্লিউজিবির ভবিষ্যত্ পরিকল্পনা হলো বাংলাদেশের সবুজায়নে বড় ধরনের ভূমিকা রাখা। ডব্লিউজিবি চায় পরিচ্ছন্ন সুন্দর একটি বাংলাদেশ। এছাড়াও জলবায়ু পরিবর্তনের সামগ্রিক ক্ষতি কমিয়ে আনার লক্ষ্যে ঢাকার চারপাশে একটি গ্রিন বেল্ট গড়ে তুলতে কাজ করছে সংগঠনটি।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৪ জুন, ২০১৯ ইং
ফজর৩:৪৪
যোহর১১:৫৭
আসর৪:৩৭
মাগরিব৬:৪৬
এশা৮:০৯
সূর্যোদয় - ৫:১০সূর্যাস্ত - ০৬:৪১
পড়ুন