জাগরণের গান ‘৪৭ থেকে ৭১’
জাগরণের গান ‘৪৭ থেকে ৭১’
থিয়েটার ইনস্টিটিউট চট্টগ্রাম প্রাঙ্গণের মুক্তমঞ্চে পরিবেশিত হয়েছে ‘১৯৪৭ থেকে ১৯৭১’ পর্যন্ত ভাষা ও জাগরণের গান। এছাড়া সমসাময়িক পরিস্থিতি নিয়ে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে পরিবেশিত দলীয় সঙ্গীত, একক সঙ্গীত ও আবৃত্তি পরিবেশিত হয়েছে। সৃজামি সাংস্কৃতিক অঙ্গন-এর উদ্যোগে গত ২১ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টায় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি’ পরিবেশনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সাংস্কৃতিক অঙ্গনের দল প্রধান সুজিত চক্রবর্ত্তী ও সাংগঠনিক সম্পাদক মনোজিত্ দাশ বর্মন (কাঞ্চন)। বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামীলীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ও সৃজামির উপদেষ্টা দেবাশীষ গুহ বুলবুল ও থিয়েটার ইনিস্টিটিউট চট্টগ্রামের আটিস্টিক ডিরেক্টর আহমেদ ইকবাল হায়দার। অনুষ্ঠানে সঙ্গীতশিল্পী অধ্যাপিকা মৃণালিনী চক্রবর্ত্তীকে সংগঠনের পক্ষ থেকে সম্মাননা জানানো হয়। অনুষ্ঠানে ‘৪৭ থেকে ৭১’-এর ধারা বর্ণনার সাথে সাথে শিল্পীদের সঙ্গীত পরিবেশনায় দর্শকদের মনে স্বাধীনতার পুরো স্মৃতি নতুন করে জেগে ওঠে।

অনুষ্ঠানে একুশের রক্ত ঝরানো দিন শিরোনামে নরেন আবৃত্তি একাডেমি করে দলীয় পরিবেশনা। দেশের গান পরিবেশন করেন মৃণালিনী চক্রবর্ত্তী, পুরবী চক্রবর্ত্তী, শিউলি ঘোষ, লুপর্না মুত্সুদ্দী ও শিমলী দাশ। মঞ্চে জাগরণের গান পরিবেশন করেন সুজিত চক্রবর্ত্তী, মনোজিত্ দাশ বর্মন (কাঞ্চন), লুপর্ণ মুত্সুদ্দী (লোপা), তাপস দাশ, কার্ত্তিক দেব, বিজয় বোস,পূর্ণিমা বিশ্বাস, রুম্পা কানুনগো, রনি দত্ত, শ্রাবন্তী দাশ, মিশু সরকার, চন্দ্র্রিমা চৌধুরী, রীতাময়ী চৌধুরী (দোলা), অর্পিতা দাশ, অরিভা সেনগুপ্তা, অনুশি সেনগুপ্তা, ঐশ্বর্য্য নাহা রায়, রশ্মি দেব, রিয়া চৌধুরী, প্রিয়া দত্ত ও চৈতী চক্রবর্ত্তী।

এ্যাড. নবনীতা গুহ (লোচনা)-র উপস্থাপনায় যন্ত্রে ছিলেন রুবেল চক্রবর্ত্তী, মো. তাজউদ্দিন তাজু ও প্রিতম আচার্য্য। মঞ্চে একে একে পরিবেশিত হতে থাকে ‘ওরে মাঝি দে নৌকা ছেড়ে দে’, ‘যে সামালো ধান হো কাস্তেটা দাও শানহো’, ‘দুনিয়র মজদুর ভাইসব আয় এক মিছিলে দাঁড়া’, ‘লাখো লাখো হাত ভেঙেছে আজকে ভীরুতা খিল’, ‘পূর্ব দিগন্তে সূর্য উঠেছে’, ‘তীর হারা এই ঢেউয়ের সাগর পাড়ি দেবোরে’সহ বিভিন্ন জাগরণের গান।

পরে সমসাময়িক পরিস্থিতির ওপর শিল্পীদের গান পরিবেশনার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়। এর আগে সকাল আটটায় বীর শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে সৃজামি সাংস্কৃতিক অঙ্গনের শিল্পীরা কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারে শহীদ বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

সাংস্কৃতিক অঙ্গনের দল প্রধান সুজিত চক্রবর্ত্তী বলেন, ‘১৯৪৭ থেকে রাজনৈতিক, সামাজিক ও বিভিন্ন স্তরের জনগণের সাথে একাত্ম হয়ে আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেছে সংস্কৃতি কর্মীরা গণজাগরণের গান নিয়ে। জেল, জুলুম, হুলিয়া ও মৃত্যুভয়কে উপেক্ষা করে সঙ্গীতের মাধ্যমে সাধারণ জনগণকে উদ্বুদ্ধ করেছে বারে বারে। তারই ধারাবাহিকতায় এই গানের আয়োজন করা হয়েছে।’

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩ মার্চ, ২০২১ ইং
ফজর৫:০৪
যোহর১২:১১
আসর৪:২৪
মাগরিব৬:০৫
এশা৭:১৮
সূর্যোদয় - ৬:১৯সূর্যাস্ত - ০৬:০০
পড়ুন