নরসিংদীতে একুশে বইমেলায় মঞ্চস্থ হলো একাধিক নাটক
নরসিংদীতে একুশে বইমেলায় মঞ্চস্থ হলো একাধিক নাটক
উত্সবমুখর পরিবেশে ১৪ দিনব্যাপী একুশের বইমেলা ও বসন্ত উত্সবের সমাপ্তি ঘটেছে গত শুক্রবার। নরসিংদী জেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত নরসিংদী সরকারি কলেজ মাঠে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি এই বইমেলার উদ্বোধন করা হয়। মেলায় প্রতিদিন দর্শনার্থীর ভিড়ে মেলা প্রাঙ্গণ ছিল মুখরিত। মেলা প্রাঙ্গণে প্রতিদিনই ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, কবি-সাহিত্যিক, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সর্বস্তরের লোকজনের সমাগম ছিল লক্ষণীয়। নরসিংদী জেলা প্রশাসক আবু হেনা মোরশেদ জামানের সভাপতিত্বে গত শুক্রবার সমাপনী দিনে বিকেল সাড়ে ৪টায় ভাষা দিবসের সেমিনার, সন্ধ্যায় সমাপনী অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী লে. কর্ণেল (অব:) মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম হিরু। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন একুশে মেলা উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. কামাল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. জসীম উদ্দীন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) খন্দকার নুরুল হক, এ ডি এম মো. রেহান উদ্দিন, অধ্যক্ষ সূর্য্যকান্দ দাস, অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তাফা মিয়া, অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল মোতালিব পাঠান প্রমুখ। মেলার মূলমঞ্চে পল্লী কবি জসিমউদ্দিন রচিত কাব্যনাট্য ‘নকশি কাঁথার মাঠ’ পরিবেশন করে রাজবাড়ী জেলা শিল্পকলা একাডেমি এবং ‘মৃত্যুঞ্জয়ী’ নাটক পরিবেশ করে নরসিংদীর সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের সংগঠন বাঁধনহারা শিল্পীগোষ্ঠি। মেলায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।

ভাষা আন্দোলন আমাদের স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রথম সোপান। পৃথিবীর ইতিহাসে আমরা একমাত্র জাতি, যারা ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছি। ভাষা আন্দোলন শুধু সাংস্কৃতিক আন্দোলনই ছিল না, এটি ছিল অর্থনৈতিক মুক্তির সংগ্রাম। আর এই ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়ে নরসিংদী জেলা প্রশাসন গত ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ১৪ দিনব্যাপী বসন্ত উত্সব, একুশে বইমেলা, সেমিনার ও  সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে। ১৩ ফেব্রুয়ারি প্রথমদিন নরসিংদী জেলা প্রশাসন আয়োজিত নরসিংদী সরকারি কলেজ মাঠে এ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন। বসন্ত উত্সব ও বইমেলায় ৫২টি বই-এর স্টল বসে। ওই দিন অনুষ্ঠানের মূলমঞ্চে জেলা শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত গীতিনাট্য ‘যশোর রোড’ পরিবেশন করে বাঁধনহারা শিল্পীগোষ্ঠি। ‘যশোর রোড’ নাটকে ১৯৭১ সালে পাকহানাদার বাহিনীর নৃশংস বর্বরতার চিত্র তুলে ধরে বাঁধনহারার শিল্পীরা। নাটকে পাকবাহিনীর বর্বরতার দৃশ্য দেখে দর্শকরা অশ্রু সজল হয়ে পড়েন।

১৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিন সন্ধ্যায় নরসিংদী জেলা প্রশাসন দিবস ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে একই মঞ্চে পরিবেশন করা হয় ‘নাটক মহুয়া’। ময়মনসিংহের গীতিনাট্য অবলম্বনে ‘মহুয়া’ নাটক পরিবেশন করে ময়মনসিংহ একাডেমি অব ফাইন আর্টস।

২০ ফেব্রুয়ারি কবি কামাল চৌধুরীর ‘কবিতায় বাংলাদেশ’ গীতিআলেখ্য সংগ্রাম ও মুক্তি পরিবেশন করে বাঁধনহারা শিল্পীগোষ্ঠি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবি ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী। অনুষ্ঠানের ফাঁকে ফাঁকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে স্থানীয় শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করে। ২১ ফেব্রুয়ারি নরসিংদী মুসলেহ উদ্দিন ভূইয়া স্টেডিয়াম সংলগ্ন শহীদ মিনারে প্রথম প্রহরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন নরসিংদী জেলা প্রশাসক আবু হেনা মোরশেদ জামান ও প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। সূর্যদয় থেকে নগ্ন পদে প্রভাত ফেরী বের হয়ে বিভিন্ন শহীদ মিনারের উদ্দেশ্যে। এতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, বয়েস স্কাউট, গালস গাইড, মুক্তিযোদ্ধাসহ সর্বস্তরের লোকজন অংশগ্রহণ করে। বিকেলে ভাষা দিবসে সেমিনারে স্থানীয় সুধীবৃন্দ আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন এবং স্থানীয় শিল্পীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করে। ২২ ফেব্রুয়ারি আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল উল্লেখযোগ্য।

মেলায় মিডিয়া পার্টনার ছিল দৈনিক ইত্তেফাক।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩ মার্চ, ২০২১ ইং
ফজর৫:০৪
যোহর১২:১১
আসর৪:২৪
মাগরিব৬:০৫
এশা৭:১৮
সূর্যোদয় - ৬:১৯সূর্যাস্ত - ০৬:০০
পড়ুন