চিংড়ি রপ্তানিতে মান নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে ইইউ-এফভিও অডিট রিপোর্ট
ডাইঅক্সিন ও ক্যাডমিয়ামের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণসহ চারটি সুপারিশ বাস্তবায়নের তাগিদ
ইত্তেফাক রিপোর্ট২৭ আগষ্ট, ২০১৫ ইং
ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোতে চিংড়িসহ সব ধরনের মাছ রপ্তানির ক্ষেত্রে আহরণ ও বাজারজাতকরণ পর্যন্ত সকল পর্যায়ে মাননিয়ন্ত্রণের বিষয়ে ইইউ-ফুড এন্ড ভেটেরিনারি অফিস (এফভিও) চারটি সুপারিশ বাস্তবায়নের তাগিদ দিয়েছে। এছাড়া অন্যান্য ক্ষেত্রে সন্তোষ প্রকাশ করেছে সংস্থাটি।

গতকাল বুধবার মত্স্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী মোহাম্মদ ছায়েদুল হকের সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে  ইইউ-এফভিও অডিট মিশন কর্তৃক প্রেরিত চূড়ান্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন উপলক্ষে সংশ্লিষ্টদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

অফিসিয়াল কন্ট্রোল সিস্টেমের সুপারিশে বলা হয় ফিশিং ভেসেলগুলোর তাপমাত্রা নির্ধারিত মাইনাস আঠারো ডিগ্রি ঠিক থাকে না। এছাড়া ট্রলারের হ্যাছাপও ঠিক হচ্ছে না। সুপারিশে ওষুধ ব্যবহারের ক্ষেত্রে যে ডাইঅক্সিন  ও ক্যাডমিয়ামের ব্যবহার হয় তা নিয়ন্ত্রণের জন্য বলা হয়েছে। রাসায়নিক দূষণ নির্ধারণ এবং নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে নতুন দুটি পরীক্ষার সুপারিশ করা হয়েছে। মেট্রানিডাজল এবং ক্রিমিনাশক যে ওষুধ ব্যবহার করা হয় তা চিংড়িতে প্রবেশ করে কিনা এবং ইইউতে ব্যবহার বন্ধ হয়েছে এমন এন্টিবায়োটিক যা বাংলাদেশে ব্যবহূত হচ্ছে সেগুলো কোনভাবে চিংড়িতে যায় কিনা তা পরীক্ষা করতে বলা হয়েছে। ক্রটিগুলো নিষ্পন্নের বিষয়ে মত্স্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় ছয় মাস থেকে এক বছর সময় নিয়েছে।

সভাপতির বক্তৃতায় মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের বিশাল সমুদ্র এলাকা দেশের অর্থনৈতিক উন্নতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। আগামী ২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালনকে সামনে রেখে মত্স্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা চান।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ আগষ্ট, ২০১৯ ইং
ফজর৪:২০
যোহর১২:০১
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:২৫
এশা৭:৪০
সূর্যোদয় - ৫:৩৮সূর্যাস্ত - ০৬:২০
পড়ুন