মুদ্রানীতি ঘোষণা, বেসরকারি খাতে ঋণ বৃদ্ধির লক্ষ্য
২৭ জুলাই, ২০১৬ ইং
g ইত্তেফাক রিপোর্ট

বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবাহ বাড়ানোর লক্ষ্য নিয়ে মুদ্রানীতি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। নতুন মুদ্রানীতিতে প্রাক্কলিত অভ্যন্তরীণ ঋণ প্রবৃদ্ধির মাত্রা দেশজ উত্পাদনে (জিডিপি) ৭ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনে পর্যাপ্ত হবে। এ ঋণ প্রবাহ অনুত্পাদনশীল ঝুঁকিপূর্ণ কাজে ব্যবহার না হয়ে যাতে অভ্যন্তরীণ ও রপ্তানি চাহিদার জন্য উত্পাদনের প্রকৃত প্রয়োজনে সদ্ব্যবহার হয় সেদিকে লক্ষ্য থাকবে। কৃষিখাত, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগ খাত, পরিবেশবান্ধব সবুজ প্রকল্প খাত প্রভৃতি খাতে ঋণ বাড়ানোর তাগিদ থাকবে মুদ্রানীতিতে।

চলতি অর্থবছরের (২০১৫-১৬) প্রথমার্ধের ঘোষিত মুদ্রানীতিতে এসব বিষয়ে আলোকপাত করা হয়েছে। আগের কয়েকটি মুদ্রানীতির প্রকৃতির মত এবারের মুদ্রানীতির প্রকৃতিও একই হলেও ‘সতর্ক ও সংকুলানমূলক’ বলে আখ্যায়িত করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে গভর্নর ফজলে কবির মুদ্রানীতি ঘোষণা করেন। রিজার্ভ চুরির ঘটনার পর গত মার্চে দায়িত্ব নেওয়ার পর এটাই তার প্রথম মুদ্রানীতি ঘোষণা। গভর্নর নতুন হলেও মুদ্রানীতিতে খুব বেশি পরিবর্তন দেখা যায়নি। গতানুগতিক ও প্রথাগত মুদ্রানীতি দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। গতকাল অনুষ্ঠানে গভর্নরের পাশাপাশি গভর্নরের সিনিয়র অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ফয়সাল আহমেদ, ডেপুটি গভর্নর এসকে সুর চৌধুরী, আবু হেনা মোহা. রাজী হাসান, প্রধান অর্থনীতিবিদ ড. বিরূপাক্ষ পাল, চেইঞ্জ ম্যানেজমেন্ট অ্যাড্ভাইজার আল্লাহ্ মালিক কাজেমী, অর্থনৈতিক উপদেষ্টা আখতারুজ্জামান সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। অনুষ্ঠানে নির্বাহী পরিচালকসহ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ফজলে কবির বলেন, সরকারের বাজেটে ঘোষিত ৭ দশমিক ২ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি ও ৫ দশমিক ৮ শতাংশ মূল্যস্ফীতির লক্ষ্যমাত্রার এবং বর্ধিষ্ণু অর্থনীতিতে বর্ধিত মুদ্রায়নের সংকুলানে ২০১৭ অর্থবছরে ব্যাপকমুদ্রার প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলিত হয়েছে ১৫ দশমিক ৫ শতাংশে। এতে অভ্যন্তরীণ ঋণের প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলিত হয়েছে ১৬ দশমিক ৪ শতাংশে। তিনি বলেন, অভ্যন্তরীণ ঋণের প্রবৃদ্ধির মধ্যে বেসরকারি খাতের ঋণের প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন ধরা হয়েছে ১৬ দশমিক ৫ শতাংশ। আর সরকারি খাতের ঋণের প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন ধরা হয়েছে ১৫ দশমিক ৯ শতাংশে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ঘোষিত গত মুদ্রানীতিতে জুন পর্যন্ত বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন করা হয়েছিল ১৪ দশমিক ৮০ শতাংশ। অবশ্য নির্ধারিত সময়ের ৫ মাস আগে এ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত মে মাসের শেষে বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি দাঁড়িয়েছে ১৬ দশমিক ৪০ শতাংশ। ওই মুদ্রানীতি জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় ৬ দশমিক ৮ থেকে ৬ দশমিক ৯ শতাংশ, যা সরকারের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কিছুটা কম ছিল।

ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে চুরি হওয়া অর্থের পুরোটাই ফেরত আসবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন গভর্নর ফজলে কবির। কিভাবে তা ফেরত আসবে সে বিষয়েও ব্যাখ্যা করেন তিনি। ব্যাংকিং খাতের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক প্রতি ছয় মাস অন্তর আগাম মুদ্রানীতি ঘোষণা করে থাকে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ জুলাই, ২০২১ ইং
ফজর৪:০২
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৪৭
এশা৮:০৮
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:৪২
পড়ুন