নাখালপাড়ায় বৃদ্ধাকে হত্যা
সন্দেহ সেই সিরিয়াল কিলারের দিকে
১১ মার্চ, ২০১৮ ইং
ইত্তেফাক রিপোর্ট

রাজধানীর তেজগাঁওয়ের পশ্চিম নাখালপাড়ায় বাসায় ঢুকে আমেনা বেগম নামে এক বৃদ্ধাকে গলা কেটে হত্যার ঘটনার তিন দিনেও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। পুলিশ নিহতের পরিবারের সদস্য ও আশেপাশের বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলেছে। কারো কাছে কোনো সুনির্দিষ্ট অভিযোগ না পাওয়ার কারণে বা সন্দেহজনক কোনো বিষয় ধরা না পারায় এই খুনের ক্লু বের করতে বেগ পেতে হচ্ছে পুলিশকে। ওই এলাকায় কোনো সিসি ক্যামেরার ফুটেজে কোনো সন্দেহজনক কিছু ধরা পড়েনি। তবে পুলিশের তদন্তকারী দল খুনের একাধিক মোটিভ নিয়ে মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন। আমেনা বেগমকে হত্যা করে তার শরীরের স্বর্ণালংকার নিয়ে গেছে ঘাতক। বিষয়টি ডাকাতি না অন্য কোনো ঘটনায় তাকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে তার উদঘাটনে মাঠে কাজ করছে তদন্তকারী দল। এছাড়া এর আগে উত্তরখান ও দক্ষিণখান এলাকায় একই কায়দায় বাসা ভাড়ার নাম করে চার নারীকে হত্যা করা হয়েছিল। ওই হত্যার সঙ্গে একজন সিরিয়াল কিলার জড়িত। ওই সিরিয়াল কিলার জড়িত কি-না  সেটিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পশ্চিম নাখালপাড়ার ২৮৮ নম্বর পাঁচতলা বাড়ির নিচতলায় বাড়ির মালিক আমেনা বেগমকে গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তেজগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি। গত ৩ দিনেও এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। এলাকায় কোনো সিসি ক্যামেরার ফুটেজ না পাওয়া কারণে খুনিদের চিহ্নিত করতে বেগ পেতে হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মামলার তদন্তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট তেজগাঁও থানার এক কর্মকর্তা জানান, বাসা ভাড়ার নাম করে বাসার মধ্যে ঢুকে ২০১৬ সালে উত্তরখান এলাকায় চার নারীকে কুপিয়ে হত্যা করেছিল দুর্বৃত্তরা। সেখান থেকেও তারা স্বর্ণালংকার, মোবাইল ও টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত খুনিদের এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তার করতে পারেনি আইন-শৃংখলা বাহিনীর বিভিন্ন সংস্থা। তেজগাঁও-এর ঘটনাটি ওই চক্রের কাজ কি-না তা অনুসন্ধানে নেমেছে পুলিশ। সূত্র জানায়, এ ঘটনায় পরই পুলিশ এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবারকে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ মার্চ, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৬
যোহর১২:০৯
আসর৪:২৭
মাগরিব৬:০৯
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৬:০৪
পড়ুন