২০ দলের সমর্থনেস্বতন্ত্রভাবে লড়বেজামায়াত
মনোনয়নপত্র নিলেন ৩ নেতা
১২ নভেম্বর, ২০১৮ ইং

ইত্তেফাক রিপোর্ট

আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্রভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নিবন্ধন হারানো জামায়াত। নিবন্ধন হারানোর কারণে দলটির নির্দিষ্ট কোনো নির্বাচনী প্রতীক নেই। জামায়াত বর্তমানে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটে শরিক হিসেবে থাকলেও দলটির নেতারা বিএনপি কিংবা জোটভুক্ত অন্য কোনো দলের প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না বলে জানিয়েছেন জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের। জানা গেছে, স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করতে জামায়াতের কেন্দ্রীয় এই সিদ্ধান্ত দলের সর্বস্তরে ইতোমধ্যে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বিএনপির পক্ষ থেকেও গতকাল ইসিতে চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে, বিএনপিসহ ২০ দলের আটটি নিবন্ধিত দল জোটগত নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। এক্ষেত্রে বাকি সাতটি শরিক চাইলে বিএনপির নির্বাচনী প্রতীক ‘ধানের শীষ’ মার্কায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবে।

দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জামায়াতের তিনজন নেতা চট্টগ্রামে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে গতকাল রবিবার মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। তারা হলেন- চট্টগ্রাম মহানগর জামায়াতের সাবেক নায়েবে আমির শাহজাহান চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির আ ন ম শামসুল ইসলাম এবং বাঁশখালী উপজেলা চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম। এদের মধ্যে কারাবন্দি শাহজাহান ও শামসুল চট্টগ্রাম-১৫ (সাতকানিয়া) আসন থেকে মনোনয়নপত্র তুলেছেন। শাহজাহান ২০০১ সালে এবং শামসুল ২০০৮ সালের নির্বাচনে এই আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন। আর জহিরুল মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য।

উল্লেখ্য, জামায়াত ২০০১ ও ২০০৮ সালে বিএনপির সঙ্গে জোটগতভাবে নির্বাচনে অংশ নেয়। ২০১৩ সালে হাইকোর্টের এক রায়ে জামায়াতের নিবন্ধন অবৈধ ঘোষণা করে দলটিকে নির্বাচনের ‘অযোগ্য’ ঘোষণা করা হয়। ইসি সম্প্রতি জামায়াতের নিবন্ধন বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারি করে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১২ নভেম্বর, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পড়ুন