মেসি-সুয়ারেজ-নেইমারের শতক
গেটাফের জালে বার্সার ছয় গোল
স্পোর্টস ডেস্ক৩০ এপ্রিল, ২০১৫ ইং
মেসি-সুয়ারেজ-নেইমারের শতক
তিন তারকা স্ট্রাইকার লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজ এবং নেইমার চলতি মৌসুমে সম্মিলিতভাবে শততম গোল করার রাতে বার্সেলোনা গত মঙ্গলবার অতিথি গেটাফেকে ৬-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে। এই জয়ে তালিকার শীর্ষের স্থান সুদৃঢ় করার পাশাপাশি শিরোপার পথেও আরো এক ধাপ এগিয়েছে কোচ লুইস এনরিকের দল। জোরাল হয়েছে চলতি মৌসুমে ট্রেবল জয়ের সম্ভাবনাও।

ক্যাম্প ন্যুতে অনুষ্ঠিত খেলার নবম মিনিটে পেনাল্টি থেকে বার্সাকে এগিয়ে নেন মেসি। গেটাফের গোলবক্সের সামনে সুয়ারেজ ফাউলের শিকার হওয়ায় পেনাল্টিটি পায় স্বাগতিকরা। ২৫তম মিনিটে সুয়ারেজই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। এর একটু পর এই উরুগুয়ান স্ট্রাইকার আরো একটি গোলের সুযোগ তৈরি করেন, যা কাজে লাগিয়ে বার্সাকে তৃতীয় গোলটি এনে দেন নেইমার। এর মধ্য দিয়ে চলতি মৌসুমে বার্সার হয়ে মেসি, নেইমার ও সুয়ারেজের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় গোলের পরিমাণ দাঁড়ায় ১০০টিতে। জাভি হার্নান্দেজ ৩০তম মিনিটে দুর্দান্ত একটি গোল করলে ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় বার্সা। সুয়ারেজের দ্বিতীয় গোলে প্রথমার্ধেই পঞ্চম গোল পায় এনরিকের দল। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই অতিথি গেটাফের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন মেসি, আদায় করে নেন নিজের দ্বিতীয় গোলটি।

এই জয়ে বার্সা তালিকার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রিয়ালের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান দুই থেকে পাঁচে নিয়ে গেলো। তবে গতকাল বুধবার রাতে রিয়াল অতিথি আলমেরিয়ার বিপক্ষে জয় পেয়ে থাকলে ব্যবধান আবারো দুই পয়েন্টে নিয়ে আসতে পারবে কোচ কার্লো অ্যানচেলত্তির দল।

খেলা শেষে বার্সার এই নৈপুণ্যকে সমর্থকদের কাছে দলের অঙ্গীকার বলে উল্লেখ করেন সুয়ারেজ। খেলা শেষে লিভারপুলের সাবেক স্ট্রাইকার বলেন, ‘আমি জানি না—এখানে কোনো সাফল্যের চাবিকাঠি আছে কি-না। তবে এই সাফল্যকে দল এবং সমর্থকদের মধ্যে অঙ্গীকার বলতে হবে। ফলে আমরা গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচগুলো জিততে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং আমরা এখন মৌসুমের গুরুত্বপূর্ণ পর্বে প্রবেশ করেছি।’

বার্সার তিন তারকা স্ট্রাইকারের নৈপুণ্যে দারুণ খুশি কোচ এনরিকেও। তার বিশ্বাস আক্রমণ ভাগের এই তিন তারকা দাপট অব্যাহত থাকলে বার্সাকে আটকানো অসম্ভব। গেটাফের বিপক্ষে জয়ের পর তিনি বলেন, ‘এটা দলকে অভিনন্দন জানানোর আরো একটি দিন। কেননা এই ধরনের খেলাগুলো সহসাই কঠিন হয়ে উঠতে পারে। এজন্য এই খেলার মতোই অন্যগুলোতেও ভালো একটি শুরু দরকার।’

এনরিকে জানালেন, তার দল বার্সা শিরোপার কাছে চলেও গেলেও আত্মপ্রসাদে ভুগছে না। কেননা শিরোপার দৌড়ে এখনো নিজেদের সম্ভাবনা জোরালোভাবেই ধরে রেখেছে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল। যদিও মাদ্রিদের এই দলটিকে আগামী কয়েকদিনে সেভিয়া এবং ভ্যালেন্সিয়ার মতো কঠিন প্রতিপক্ষের সঙ্গে লড়তে হবে। এ ব্যাপারে বার্সা কোচ বলেন, ‘আমরা আত্মপ্রসাদে ভুগছি না। কেননা আমরা জানি দুর্দান্ত প্রতিপক্ষ রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে মৌসুমের শেষ পর্যন্তই লড়তে হবে আমাদের। তাই খেলোয়াড়রা এখন যেভাবে খেলছে এভাবেই ব্যাপারগুলো চালিয়ে যেতে হবে এবং আরো মনোযোগী হতে হবে।’

বার্সার বড় জয়ের দিন লা লিগার অপর দুই খেলায় অ্যাটলেটিক বিলবাও-রিয়াল সোসিয়েদাদের খেলা ১-১ গোলে ড্র হয়েছে। আর লেভান্তে নিজেদের মাঠে ১-০ গোলে হারিয়েছে কর্ডোবাকে।—এএফপি

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ইং
ফজর৪:০৪
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩২
মাগরিব৬:২৯
এশা৭:৪৭
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:২৪
পড়ুন