দলের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ মুশতাক
৩০ এপ্রিল, ২০১৫ ইং
দলের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ মুশতাক
g স্পোর্টস রিপোর্টার, খুলনা থেকে

একটা দিন মানুষের চেহারা কেমন বদলে দেয়।

ওয়ানডে সিরিজের মাঝে এই মুশতাক আহমেদকেই ট্রাজেডির এক চরিত্র মনে হচ্ছিল—কথা খুঁজে পাচ্ছিলেন না। আর সেই মুশতাকই গতকাল সপ্রতিভতার প্রতিচ্ছবি হয়ে উঠলেন সংবাদ সম্মেলনে। বার বার বললেন, তার বোলার, ফিল্ডার ও ব্যাটসম্যানরা এক অসামান্য দিন উপহার দিয়েছেন। এটাকে নিয়ে ম্যাচটাই নিয়ন্ত্রণে নিতে চান তারা।

পাকিস্তানের বোলিং কোচ মুশতাকের কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি কৃতিত্ব পাচ্ছেন বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের লেজ মুড়িয়ে দেয়া বোলার ও তাদের সঙ্গে বিপুল পরাক্রমে ফিরে আসা ব্যাটসম্যানরা, ‘আমরা ভাবিনি যে, বাংলাদেশের ব্যাটিং এভাবে ধ্বসে পড়বে। কারণ, উইকেট খুবই ধীরগতির ছিলো। তবে আমাদের বোলাররা অসাধারণ বল করেছে এবং ফিল্ডাররাও আজ অন্তত ভালো সমর্থন দিয়েছে। ফলে দিনটা আমাদের হয়েছে।’

বোলার ফিল্ডারদের এই যৌথ সাফল্যে কিংবদন্তী লেগস্পিনার কৃতিত্ব দেখছেন অধিনায়ক মিসবাহ-উল হকেরও, ‘আমি মিসবাহকে দারুণ কৃতিত্ব দেব। সে যেভাবে ট্যাকটিক্যালি ফিল্ডিং সাজিয়েছে, যেভাবে ব্যাটসম্যানদের স্কোর করার পথ বন্ধ করে দিয়েছে, এটা অসাধারণ ছিলো।’

এরপর প্রশস্তির ডালি খুলে বসলেন মুশতাক সাবেক অধিনায়ক ও ইনফর্ম ওপেনার হাফিজের জন্য, ‘আমাদের ব্যাটিংয়ের চিন্তাটা ছিলো, উইকেট হারানো চলবে না এবং যতো বেশি সম্ভব রান তুলতে হবে। এই উইকেটে কিছুটা সতর্কতা দেখানো দরকার। কিন্তু এখানে আবার আপনি ইতিবাচক না থাকলে এবং একটু আক্রমণ না করলে রান স্কোরিং অপশন পাবেন না। হাফিজ সেটা খুব ভালোভাবে করেছে। আজকের পারফরম্যান্সের জন্য আমি ওকেই কৃতিত্ব দেব।’

লেগ স্পিনার হিসাবে মুশতাকের বিশেষ নজরে থাকার কথা তরুণ লেগ স্পিনার ইয়াসিরের। সেই সঙ্গে জুলফিকার বাবরের পারফরম্যান্সেও মুগ্ধ তিনি, ‘আমি আগের দিনই আশা করছিলাম ইয়াসির শাহ ও জুলফিকার বাবর আরও বেশি উইকেট পাবে। ওরা যেভাবে বল করছিল এবং যতো সুযোগ তৈরি করছিল, তাতে এটা ওদের প্রাপ্য ছিলো। কিন্তু আমরা সুযোগ হারিয়েছিলাম বলে তারা প্রাপ্য উইকেট পায়নি। তবে আমার বিশ্বাস ছিলো, ওরা ভালো করবে। আজ সেটা করতে পেরেছে।’

মুশতাক বলছেন, তারা জানতেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা পাল্টা আক্রমণ করে এই বিপদ এড়ানোর চেষ্টা করবে। তবে সে সুযোগ তারা দিতে চাননি, ‘বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা পাল্টা আক্রমণ করতে পছন্দ করে। তবে আমরা প্রতিপক্ষের শক্তি নিয়ে খুব একটা ভাবিনি। আমরা বরং আমাদের শক্তির জায়গাগুলো বের করতে চেষ্টা করেছি। গতকাল এবং আজ আমরা চেষ্টা করেছি, ভুলগুলোর পুনরাবৃত্তি না করতে।’

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ইং
ফজর৪:০৪
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩২
মাগরিব৬:২৯
এশা৭:৪৭
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:২৪
পড়ুন