ল্যাতিন আমেরিকার ফুটবল লড়াই
আর্জেন্টিনাকে রুখে দিলো প্যারাগুয়ে
১৫ জুন, ২০১৫ ইং
আর্জেন্টিনাকে রুখে দিলো প্যারাগুয়ে
g স্পোর্টস ডেস্ক

দীর্ঘ ২২ বছর পর ফের কোপা আমেরিকার শিরোপা জয়ের লক্ষ্য নিয়ে আসা আর্জেন্টিনা টুর্নামেন্টটির এবারের আসরে নিজেদের প্রথম খেলাতেই প্যারাগুয়ের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে ধাক্কা খেয়েছে। সার্জিও আগুয়েরো ও লিওনেল মেসির গোলে প্রথমার্ধে দুই গোলে এগিয়ে গেলেও তা ধরে রাখতে পারেনি কোচ জেরার্ডো মার্টিনোর দল। দ্বিতীয়ার্ধে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ম্যাচের পয়েন্টে ভাগ বসায় প্যারাগুয়ে।

গতকাল ভোর রাতে স্বাগতিক চিলির লা সেরেনায় অনুষ্ঠিত খেলাটির ষষ্ঠ মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু সেটা কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন লিওনেল মেসি-আগুয়েরোরা। এরপরই তারকা সমৃদ্ধ আর্জেন্টিনা প্যারাগুয়ের গোলপোস্ট অভিমুখে আক্রমণের পরিমাণ বাড়াতে থাকে। শুরুর দিকে আরো কিছু গোলের সুযোগ পেলেও কাজে লাগাতে পারেনি মেসিরা। এই সময়ে প্যারাগুয়েও আর্জেন্টিনা অভিমুখে গোছানো কিছু আক্রমণ চালায়। কিন্তু জাাভিয়ের মাশেরানো ও মার্কোস রোহোদের নিয়ে গড়া রক্ষণভাগের দেয়াল ভাঙতে পারেনি দলটি।

গোলের জন্য খুব বেশি অপেক্ষা করতে হয়নি আর্জেন্টিনাকে। ২৯তম মিনিটে প্যারাগুয়ের রক্ষণভাগে চরম ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে দলকে এগিয়ে নেন আগুয়েরো। গোলমুখে ব্যাকপাস দিয়েছিলেন প্যারাগুয়ের ডিফেন্ডার মিগুয়েল সামুদিও, কিন্তু তার আস্তে করে বাড়ানো বল দ্রুত ছুটে এসে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোলরক্ষকের বাধা এড়িয়ে জালে জড়ান ম্যানচেস্টার সিটির এই তারকা স্ট্রাইকার।

ব্যবধান দ্বিগুণ করতেও সময় নেয়নি মার্টিনোর দল। ৩৪তম মিনিটে প্যারাগুয়ের বক্সের ডান-দিক দিয়ে ঢুকে পড়েন আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া। তাকে ফাউল করেন সামুদিও। ফলে পেনাল্টি পায় ১৪ বারের কোপা চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। সহজ এই সুযোগ থেকে দ্বিতীয় গোলটি করেন বার্সেলোনার হয়ে সদ্য ‘ট্রেবল’ জেতা মেসি।

তবে খেলার দ্বিতীয়ার্ধে চমক দেখায় প্যারাগুয়ে। আক্রমণাত্মক খেলে তারা ব্যতিব্যস্ত করে তোলে আর্জেন্টিনার রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের। এই সময়ে মেসিবাহিনীও পাল্টা আক্রমণ চালালেও সাফল্য আসেনি। ৬০তম মিনিটে আর্জেন্টিনা শিবিরে আঘাত হানেন নেলসন ভালদেস। বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শটে ব্যবধান কমান প্যারাগুয়ের এই মিডফিল্ডার। এর দুই মিনিট পর ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ তৈরি করেছিলেন মেসি। রক্ষণের বাধা এড়িয়ে গোলরক্ষককে কাটিয়ে বাঁ-দিক দিয়ে ঢুকে পড়েছিলেন টানা চারবারের বর্ষসেরা এই তারকা, কিন্তু দুরূহ কোণ থেকে নেয়া তার কোনাকুনি শটটি অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

৬৭তম মিনিটে আরেকটি সহজ সুযোগ নষ্ট করেন আর্জেন্টিনার জাভিয়ের পাস্তোরে। পিএসজির এই মিডফিল্ডারের জোরালো শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক। ৭১তম মিনিটে বড় বাঁচা বেঁচে যায় আর্জেন্টিনা। দেরলিস গনসালেসের কোনাকুনি শটে ভালদেস পা লাগালেই গোল হতে পারত, কিন্তু বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের সাবেক এই ফরোয়ার্ড সেটা পারেননি।

খেলার ৯০তম মিনিটে প্যারাগুয়েকে সমতায় ফেরান লুকাস বারিওস। ডিফেন্ডার পাওলো দা সিলভার হেড থেকে বল পেয়ে ১৫ গজ দূর থেকে জোরালো নিচু শটে সমতাসূচক গোলটি করেন বদলি হিসেবে নামা এই ফরোয়ার্ড। তবে যোগ করা সময়ে আর্জেন্টিনাকে আবার এগিয়ে দেয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন কার্লোস তেভেস। কিন্তু ডি মারিয়ার ক্রসে ফাঁকায় দাঁড়িয়েও লক্ষ্যভ্রষ্ট হেড করেন জুভেন্তাসের এই তারকা ফরোয়ার্ড।

শেষ মুহূর্তে এভাবে গোল হজম করে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়াটাকে ‘পাপের’ মতো করেই দেখছেন আর্জেন্টিনা কোচ মার্টিনো। খেলা শেষে তিনি বলেন, ‘এটা এক ধরনের পাপ।’ শিষ্যদের অবহেলায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বার্সেলোনার সাবেক এই কোচ আরো বলেন, ‘আমরা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেছিলাম এবং এই সুযোগে প্রতিপক্ষ দলটি ড্র করার জন্য বেশ কিছু সুযোগ পেয়েছে। খেলাটিতে আমাদের জয়ের সুযোগ ছিল।’

এদিকে এই ড্রয়ে উচ্ছ্বসিত প্যারাগুয়ে শিবির। দলকে ড্র-সূচক গোল এনে দেয়া লুকাস বারিওস বলেন, ‘আর্জেন্টিনার মতো দলের বিপক্ষে শেষ মুহূর্তে ড্র করা জয়ের মতোই বলা যায়।’ প্যারাগুয়ের হয়ে অপর গোলটি করা ভালদেস তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘ব্যক্তিগত দিক থেকে আমরা আর্জেন্টিনা থেকে অনেক পিছিয়ে। তবে দল হিসেবে আমরা তাদের থেকে ভালো।’—এএফপি 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৫ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন