বিদেশিদের ভিড়ে এগিয়ে এনামুল
২৭ আগষ্ট, ২০১৫ ইং
বিদেশিদের ভিড়ে এগিয়ে এনামুল
g   স্পোর্টস রিপোর্টার

দেশের ফুটবলে বিদেশিদের ছাড়িয়ে যেতে পারেননি দেশি ফুটবলাররা। এমনকি অন্যতম শীর্ষ স্থানও পাননি ত্রিশ-পঁয়ত্রিশ লাখ টাকা পারিশ্রমিক পাওয়া স্ট্রাইকাররা। শীর্ষ ১২ জন বিদেশি স্ট্রাইকারদের মাঝখানে ঢুকে গেছেন মুক্তিযোদ্ধার স্ট্রাইকার এনামুল হক। তিনি রয়েছেন ৬ নম্বরে। শেখ জামালের স্ট্রাইকার ওয়েসডন এনসেলমে, এমেকা ডার্লিংটন ১৮টি করে গোল করেছেন। মোহামেডানের ইসমাইল বাঙ্গুরা ১৭টি, ব্রাদার্সের অগাষ্টিন ওয়ালসন ১৫টি, শেখ জামালের ল্যান্ডিং ডারবো ১৪টি এবং মুক্তিযোদ্ধার এনামুল ১৩টি গোল করে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন। সপ্তম স্থান থেকে ১২ নম্বর পর্যন্ত যে নামগুলো রয়েছে সেগুলো বিদেশি ফুটবলারদের। ১৩ নম্বরে মোহামেডানের জুয়েল রানার ৭ গোল, তৌহিদুল আলম সবুজের ৬ গোল, সকার ক্লাবের সোহেল মিয়ার নামে আছে ৬ গোল। শীর্ষ স্ট্রাইকারদের মধ্যে জাতীয় দলের জাহিদ হাসান এমিলি রয়েছেন ১৬ নম্বরে। তার গোল সংখ্যা ৬।

 মাত্র ১১ লাখ টাকা পারিশ্রমিক পেলেও সেদিকে না তাকিয়ে মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়াচক্রের ডাকে খেলেছেন নিজেকে উজাড় করে। ১৩ গোল করে বিদেশিদের মধ্যে স্থান নিয়ে মুখ রক্ষা করেছেন দেশীয় স্ট্রাইকার এনামুল। অথচ এই ফুটবলারকে নিয়ে কোনো মাতামাতি ছিল না গত কয়েকটি মৌসুমে। এনামুল ফুটবল থেকে যেন হারিয়েই গিয়েছিলেন নানা অভিমানে। নামডাক ওয়ালা স্ট্রাইকারদের ভিড়ে এনামুলের কথা ভুলেই যাচ্ছিল দর্শক। কিন্তু এবছর মৌসুমের শুরুতেই এনামুল যেন বীরের মতোই ফিরে আসলেন। আবার ফুটবল মাঠে দোর্দণ্ড প্রতাপের সাথে খেলতে শুরু করলেন। আবার আলোচনায় এসে গেলেন। দারুণ দারুণ সব গোল করে দর্শকের চোখে তাক লাগিয়ে দিলেন। ম্যাচের পর ম্যাচ গোল করেছেন। গোল করিয়েছেন। লিগ ম্যাচে জয়ের পেছনে এনামুল নিজেকে তুলে ধরলেন। গোল করে অপ্রত্যাশিতভাবে জাতীয় দলেও জায়গা করে নিলেন স্ট্রাইকার এনামুল।  এক ডজন বিদেশি স্ট্রাইকারের ভিড়ে নিজের নাম ৬ নম্বরে আছে শুনে দারুণ খুশি এনামুল। বলছিলেন, ‘এমন ভাবনা নিয়ে এবার লিগ শুরু করিনি। আবার ফিরতে হবে, নিজের জায়গাটা ফিরে পেতে হবে, সেই ছিল বড় লক্ষ্য।’

লিগ শুরু হওয়ার আগে এনামুল অনেক বেশি পরিশ্রম করেছেন। বললেন,‘আমি দিন রাত ভেবে দেখিনি। মাঠে ফিরতে হবে, সেটা যেন ভালোভাবে হয় তার জন্য আমাকে অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হয়েছে।’

জাতীয় ফুটবল দলের জার্সি গায়ে গতকাল রাতে মালয়েশিয়া গেছেন এনামুল। মালয়েশিয়ার বিরুদ্ধে অনুশীলন ম্যাচ খেলবেন ২৯ আগষ্ট, ৩ সেপ্টেম্বর পার্থে  অষ্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে রাশিয়া বিশ্বকাপ বাছাই ম্যাচে খেলবেন তিনি। এনামুল বললেন,‘অষ্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচটা খেলবো। এমন সুযোগ সব সময় হবে না। সুযোগ যখন সামনে এসেছে, শেষ বিন্দু দিয়ে লড়াই করার চেষ্টা করবো। দেশের মান সম্মান মাথায় রেখে খেলবো।’ চেষ্টা করবেন অজিদের জালে বল পাঠানোর।

বাংলাদেশের ফুটবলারদের মধ্যে এনামুল একটু ব্যতিক্রম। তার ব্রাউন চুলের স্টাইল চেহারায় ভিন্নতার ছাপ আছে। সবার থেকে আলাদা করে দেয়। অনেকটাই ইউরোপীয়ান ফুটবলারদের মতোই দেখতে। 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ আগষ্ট, ২০১৯ ইং
ফজর৪:২০
যোহর১২:০১
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:২৫
এশা৭:৪০
সূর্যোদয় - ৫:৩৮সূর্যাস্ত - ০৬:২০
পড়ুন