আরো বেশি টুর্নামেন্ট চান শাটলাররা
স্পোর্টস রিপোর্টার০২ ডিসেম্বর, ২০১৫ ইং
আরো বেশি টুর্নামেন্ট চান শাটলাররা
ভারতের দুই শাটলার ফ্লাইট মিস করেছেন বলে বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টে আসতে পারেননি। সেই কারণে বাংলাদেশের দুই শাটলার মোয়াজ্জেম হোসেন লিপটন এবং আব্দুল্লাহ আল মাশরাফি ওয়াক ওভার পেয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছে। তারও আগে পাকিস্তানের শাটলাররা ভিসা জটিলতায় অংশগ্রহণ করতে পারলো না। ১২ দেশের পরিবর্তে ১১ দেশ নিয়ে শুরু হওয়া আন্তর্জাতিক ব্যাডমিন্টনের প্রথম দিনে বাংলাদেশের পুরুষ শাটলাররা হেরেছেন। তাতে লজ্জা বোধ করছেন না তারা। হারতে হবে সেটা যেন আগেই জানা ছিল শাটলারদের।

ভারতের চেতন আনন্দ এক সময় তার দেশের টপ সিডেড। এখন খুব একটা খেলেন না। তারপরও বাংলাদেশের জাতীয় চ্যাম্পিয়ন আয়মান ইবনে জামানকে প্রথম দুই সেটেই হারিয়ে দিলেন। ম্যাচটা হেরে সোজা গিয়ে গাড়িতে চেপে বসলেন। উঠার আগে কথা হয় তার সাথে। লেখাপড়ার চাপে খেলাটা কম হয়। তাছাড়া ভারতের টপটেনের খেলোয়াড়রা আসছেন। আমরা র্যাংকিংয়ে ১০০ তেও নেই।’ শাটলারদের দাবি এমন টুর্নামেন্ট আরো বেশি হওয়া প্রয়োজন। এনামুল হক, লালচাঁদ, আরিফ হোসেন অনিক, মিনহাজদের দাবি দীর্ঘ সময়ের জন্য অনুশীলন হোক। প্রথম দিন হেরে বিদায় নেয়া শাটলার এনামুল বললেন নানা সমস্যার কথা। কোনটা রেখে কোনটা বলি আমরা সবদিক থেকেই পিছিয়ে। প্রশিক্ষণ খাওয়া-দাওয়া কোনোটাই আন্তর্জাতিক মানের না-বললেন এনামুল। শাটলাররা বললেন, ‘ভারতীয়রা অনেক টুর্নামেন্ট খেলছে দেশের মধ্যে। বিদেশের মাটিতে তো আছেই। আমরা যদি সমান মানের প্রশিক্ষণ পাই তাহলে ওয়ার্ল্ড র্যাংকিংয়ের শাটলারদের সাথে লড়াইটা আরো ভালো হবে।’

আয়মানের সাথে খেলার পর চেতন বললেন, ‘ও খুব ভালো খেলোয়াড়। তাকে আরো বেশি টুর্নামেন্টে খেলতে হবে। তাহলে একটা সময় আরো উপরে উঠতে পারবে। টেকনিক্যাল সমস্যাগুলো সেরে যাবে।’ এই টুর্নামেন্টে যুক্তরাষ্ট্রের মহিলা শাটলার এসেছেন। যিনি স্প্যানিশ ওপেনে সোনা জিতেছেন। আইরিশ ওয়াং বাংলাদেশেও এসেছেন সোনা নিজের র্যাংকিং বাড়ানোর জন্য। এমন শাটলারদের সাথে বাংলাদেশের পক্ষে পেরে উঠা কঠিন। সাথে কোচ নিয়ে ঢাকায় চীনা বংশোদ্ভূত শাটলার আইরশ জানালেন তিনি ৬ ঘন্টা অনুশীলন করেন। বাংলাদেশে আসার আগে অনেক তথ্য জেনে এসেছেন ক্যালিফোর্নিয়ায় বসবাসকরা এই শাটলার। আজ কোটে নামবেন মেয়েরা।  

সাত সকালে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম এলাকার কর্মচঞ্চলতা তখনও শুরু হয়নি। বিকট শব্দের হর্ণ বাজিয়ে উডেন ফ্লোর জিমনেসিয়ামের গেটে ছুটে যাওয়া গাড়ি ব্রেক করতেই দরজা খুললেন নিরাপত্তা কর্মকর্তারা। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত পা বাইরে বাড়িয়ে ব্যাডমিন্টন ফেডারেশনের সভাপতিকে বললেন, ‘মালেক দেখোতো নয়টা বাজে কি-না।’ ব্যাডমিন্টন ফেডারেশনের সভাপতিও বললেন স্যার জাস্ট ৯টা।’ তারপরই পা রাখলেন নিচে। ৯টায় উদ্বোধন হবে। প্রধান অতিথি অর্থমন্ত্রী ঘড়ির কাটা ধরে ৯টায় উপস্থিত। উডেন ফ্লোর জিমনেসিয়ামে এসেই জানতে চাইলেন আমি কি খেলে উদ্বোধন করবো নাকি অন্য ভাবে। ফেডারেশন থেকে বলা হলো স্যার আপনি উদ্বোধন ঘোষণা করলেই খেলা শুরু হবে। অর্থমন্ত্রী বললেন আমার যে বাড়ি দিতে ইচ্ছে করছে। স্যার আপনি খেলতে পারেন, হাতে র্যাকেট নেন। অর্থমন্ত্রী বললেন, না না এটা আন্তর্জাতিক খেলা। সব কিছু সময়ের উপর নির্ভর করে। বিদেশি আম্পায়ার জাজ রয়েছেন তারা খেলা শুরুর অপেক্ষায়। আমি সময় নষ্ট করতে চাই না।’

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২ নভেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৫:০৪
যোহর১১:৪৮
আসর৩:৩৫
মাগরিব৫:১৪
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:২৪সূর্যাস্ত - ০৫:০৯
পড়ুন