নাটকীয় লড়াই শেষে লঙ্কানদের হাসি
১১ অক্টোবর, ২০১৭ ইং
নাটকীয় লড়াই শেষে লঙ্কানদের হাসি
g  স্পোর্টস রিপোর্টার

পঞ্চম দিন যখন শেষ পাঁচ উইকেট হাতে নিয়ে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান তখন ঘুরে ফিরেই আসছিল ২০০৩ সালের সেই বিখ্যাত মুলতান টেস্টের স্মৃতি। কারণ, সেবার এই একইরকম অবস্থান থেকে বাংলাদেশের বিপক্ষে এক উইকেটের জয় পেয়েছিল ইনজামাম উল হকের পাকিস্তান। এবার সেই সুযোগ ছিল অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ কিংবা আসাদ শফিকের।

কিন্তু, শেষ অবধি কেউই নায়ক হতে পারেননি। ৩১৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ১৯৮ রানে পাঁচ উইকেট হারিয়ে দিন শেষ করেছিল পাকিস্তান। পঞ্চম দিনে রোমাঞ্চকর এক জয় এনে দেওয়ার ক্ষেত্রটা প্রস্তুত করেই রেখেছিলেন সরফরাজ ও শফিক। কিন্তু হলো না, মাত্র ৫০ রান যোগ করতে না করতেই বাকি পাঁচটি উইকেট হারিয়ে ফেলে পাকিস্তান।

ব্যস, দুবাইয়ের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ৬৮ রানের ব্যবধানে টেস্ট জিতে যায় শ্রীলঙ্কা। পাকিস্তানকে দুই ম্যাচের সিরিজে দু’টিই পরাস্ত করে দিল দিনেশ চান্দিমালের দল। সাম্প্রতিক সময়ে পারফরম্যান্সের দুর্দশার মধ্যে এই সিরিজটা তাদের জন্য হয়ে রইল স্মরণীয়।

বলা যায়, এই টেস্টটির সবচেয়ে রোমাঞ্চকর দিনটি ছিল চতুর্থদিন। কারণ সেদিন, মাত্র ৯৬ রানের মধ্যে অলআউট হয়ে গিয়েছিল প্রথম ইনিংসে ৪৮২ রানের পাহাড় গড়া লঙ্কান দল। জবাব দিতে নেমে পাকিস্তানও ছিল নড়বড়ে। মাত্র ৫২ রানের মধ্যে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ফেলে প্রথম ইনিংসে ২৬২ রান করা সরফরাজ আহমেদের দল।

সেখান থেকে শুরু হয় সরফরাজ-শফিকের লড়াই। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে এই দুই ব্যাটসম্যান মিলে যোগ করেন ১৭৩ রান। আসাদ শফিক সেঞ্চুরিও পেয়ে যান। ১০ চারের সৌজন্যে ১১২ রান করেন তিনি। তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে সরফরাজ করেন ৬৮ রান। যদিও, এই জুটি ভাঙার পর আর মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপ। ২৩ রানের মধ্যে শেষ পাঁচটি উইকেটের পতন হয়। মূল ধ্বংসযজ্ঞ চালান দিলরুয়ান পেরেরা। ডান হাতি এই অফস্পিনার নেন পাঁচ উইকেট। প্রথম টেস্টের নায়ক ও বর্ষীয়ান বাঁ-হাতি অফস্পিনার রঙ্গনা হেরাথ নেন দুই উইকেট। প্রথম ইনিংসে ১৯৬ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলা দ্বিমুথ করুনারত্নে একাধারে ম্যাচ সেরা ও সিরিজ সেরার পুরস্কার পেয়েছেন।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাঠে ২০১০ সাল থেকে এখন অবধি ১০টি হোম সিরিজ খেলেছে পাকিস্তান। এর মধ্যে পাঁচটিতেই জয়ী হয়েছে তারা। চারটি ড্রয়ের বিপরীতে এবার প্রথমবারের মতো সিরিজ হারল। সেটাও আবার বাজে সময়ের মধ্য দিয়ে যাওয়া শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। বলে না দিলেও চলে যে, টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে সরফরাজের শুরুটা মোটেও যুত্সই হলো না!

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩৯
যোহর১১:৪৬
আসর৩:৫৮
মাগরিব৫:৪০
এশা৬:৫১
সূর্যোদয় - ৫:৫৪সূর্যাস্ত - ০৫:৩৫
পড়ুন