পিছিয়ে যাচ্ছে গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি লিগ
১১ অক্টোবর, ২০১৭ ইং
পিছিয়ে যাচ্ছে গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি লিগ
g  স্পোর্টস রিপোর্টার

শুরুর আগেই বেশ আলোচিত হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকার ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি লিগ। যদিও, এখন বোঝা যাচ্ছে - ‘যত গর্জে সে তত বর্ষে না’। কারণ, আয়োজনগত নানারকম প্রক্রিয়া এখনও শেষ না হওয়া এই আসরটি পিছিয়ে যাওয়ার দুয়ারে দাঁড়িয়ে আছে।

ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা (সিএসএ) শিগগিরই একট টেলি-কনফারেন্সের আয়োজন করতে যাচ্ছে। সেখানে ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকদের সাথে আলোচনা করেই আসবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। তবে, পিছিয়ে যাওয়ার ব্যাপারটা মোটামুটি চূড়ান্ত বলেই জানিয়ে দিয়েছে ক্রিকেট বিষয়ক গণমাধ্যম ইএসপিএন ক্রিকইনফো।

ফলে, আগামী তিন নভেম্বর থেকে এই আসরটি শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এখন আর সেটা হচ্ছে না। আর আসলেই যদি গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি লিগ পিছিয়ে যায়, তাহলে পরোক্ষভাবে লাভবান হবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। কারণ, একই সময়ে আয়োজিত হচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দ্বিতীয় আসর। সেই আসরে এখন আন্তর্জাতিক তারকা ক্রিকেটারদের পাওয়ার সম্ভাবনা আগের তুলনায় অনেকটাই বেড়ে গেল। তবে, হঠাত্ কেন এই টুর্নামেন্ট পিছিয়ে যাচ্ছে? সম্প্রতি সিএসএ’র প্রধান নির্বাহী ও গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি লিগের মূল উদ্যোক্তা হারুন লরগাতের বিদায়ও একটা কারণ হতে পারে বলে মনে করছে খেলাধুলা বিষয়ক দক্ষিণ আফ্রিকান গণমাধ্যম সুপারস্পোর্ট। একই সাথে অবকাঠামোগত কিছু সমস্যা আছে, সম্প্রচার এখনো চূড়ান্ত হয়নি, টাইটেল স্পন্সরা লোকসানের মুখোমুখি হচ্ছে, লোকসানের শিকার হয়েছে সিএসএও। এক সপ্তাহ আগে, সিএসএ’র নতুন প্রধান নির্বাহী থাবাং মোরে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, প্রথম আসরে প্রায় ২৫ মিলিয়ন ডলার লোকসানের মুখোমুখি হবে সংস্থাটি। আর ভেতরের খবর হলো, হারুন লরগাতের অনুপস্থিতির কারণেই এই লোকসানটা হচ্ছে। একটি দলের মালিক তো সরাসরি টুর্নামেন্টটি আয়োজনের বিপক্ষেও রায় দিয়ে দিলেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই মালিক বলেন, ‘যখন আমরা বুঝতেই পারছি যে, এই আয়োজনটা ঠিক হচ্ছে না তখন কেন আমরা ঝামেলার মধ্যে যাবো। আমরা প্রস্তুতির দিক থেকে কেবল অর্ধেক রাস্তা এগিয়েছি। এই সময় তড়িঘড়ি করে আয়োজন করলে সেটা একটা বড় বিপদই ডেকে আনবে।’

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩৯
যোহর১১:৪৬
আসর৩:৫৮
মাগরিব৫:৪০
এশা৬:৫১
সূর্যোদয় - ৫:৫৪সূর্যাস্ত - ০৫:৩৫
পড়ুন