কায়সার হামিদের প্রতিচ্ছবি ডিফেন্ডার আঁখি
সোহেল সারোয়ার চঞ্চল২০ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
কায়সার হামিদের প্রতিচ্ছবি ডিফেন্ডার আঁখি
সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ বাংলাদেশ ফুটবল দলের এগার জনের মাঝে ডিফেন্ডার আঁখি খাতুনকে আলাদা করে চেনা যায়। তার দৈহিক গড়ন সবার থেকে আলাদা। সাড়ে ৫ ফুট লম্বা। গায়ের রং কালো হলেও মিষ্টি মুখের চেহারা লাজুকতায় ভরে থাকে। সংবাদ মাধ্যমে কথা বলতে গেলে হাত দিয়ে চোখ ঢেকে ফেলেন। অথচ নবম শ্রেণির লাজুক স্বভাবের মেয়েটি মাঠে নামলে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেন। পায়ের শক্তিও বেশি। হেড ওয়ার্ক দারুণ। খেলার স্টাইল অনেকটাই যেন সাবেক তারকা ডিফেন্ডার কায়সার হামিদের মতো। ভুটানের বিপক্ষে কাল জোড়া গোল করে দলকে জয়ের বন্দরে তুলে দিয়েছেন সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের মেয়ে আঁখি খাতুন। তাই তাকে নিয়ে কাল দুপুরে কমলাপুর স্টেডিয়ামে হৈচৈ পড়ে গেল। দুর্দান্ত দুটি গোল করেছেন এই কুশলী ডিফেন্ডার আঁখি। কর্নারের বল উড়ে আসে গোল মুখে। আর আঁখি ভিড়ের মধ্যে লাফিয়ে উঠে হেড করে গোল করেন। দেখে মনে হবে কায়সার হামিদের অনুকরণ। মোহামেডানের কায়সার হামিদ এভাবে অনেক গোল করেছেন তার ক্যারিয়ারে। মোহামেডান যখন গোল পেত না তখন কায়সার হামিদ প্রতিপক্ষের গোল মুখে গিয়ে দাঁড়াতেন হেড করার জন্য, তাকে ত্রাণ কর্তা বলা হতো। আঁখিও ঠিক সেরকম। কায়সার হামিদের মতোই ক্লিন ফুটবল খেলেন। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবলে বাংলাদেশের খেলায় আঁখি যেন কায়সার হামিদের প্রতিচ্ছবি। অথচ কায়সার হামিদকেও তিনি চেনেন না। কাল জানলেন কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের মুখে। শুধু হেডই নয়। কায়সার হামিদ সেটপিসে শট নিতেন। আঁখিও সেটপিসে শট করেন। কায়সার হামিদ গোল মুখে বল ফেলতেন আঁখিও সেটাই করেন। প্রতিপক্ষের গোল মুখে ছোট বক্সের ভেতরে কায়সার হামিদ যেমন ছুটোছুটি করতেন তেমনি আঁখিও সেটাই করেন। কায়সার হামিদ যেমন প্রতিপক্ষের স্ট্রাইকারকে ঠান্ডা মাথায় সামাল দিতেন। তেমনি আঁখিও খুব ঠান্ডা মাথায় নেপাল এবং ভুটানের ফরোয়ার্ডদের থামিয়েছেন।

গতকাল ভুটানের বিপক্ষে প্রথম গোলের পর দ্বিতীয়ার্ধে আবারও মারজিয়া কর্নারের বল জটলায় আঁখির পায়ে। চোখের পলকে বাঁ পা দিয়ে সুন্দর ফ্লিক করে বল ভুটানের জালে ফেলেন। হ্যাটট্রিকের হাতছানি। বাংলার মেয়েরা টানা তিনবার সেটপিস পেয়েছে। কায়সার হামিদের অনুকরণেই সেটপিসের জন্য বল বাসিয়ে শট করলেন আঁখি। কিন্তু তিনবারই বল পোস্টের বাইরে যায়। আফসোস নেই। আঁখি বলেন,‘আফসোসের কি আছে। টিম জিতেছে এটাই তো বড়।’ বিকেএসপির ছাত্রী আঁখি বলেন,‘আমার বড় ভাই নাজমুল ইসলাম আমাকে ইউটিউবে খেলা দেখাতো এখান থেকেই উত্সাহ। আঁখি জানান তার বাবার তাঁতের কাজে সহযোগিতা করতেন আঁখি। সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে আঁখিদের গ্রাম।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২০ নভেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৫:১৪
যোহর১১:৫৬
আসর৩:৪০
মাগরিব৫:১৯
এশা৬:৩৭
সূর্যোদয় - ৬:৩৫সূর্যাস্ত - ০৫:১৪
পড়ুন