৪০০ মিলিয়ন ইউরো দিতে রাজি রিয়াল!
১১ মার্চ, ২০১৮ ইং
৪০০ মিলিয়ন ইউরো দিতে রাজি রিয়াল!
 ‘নেইমারের বার্সায় ফেরা কাল্পনিক’

গতবছরের আগস্টে রেকর্ড ২২২ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে বার্সেলোনা ছেড়ে প্যারিস সেন্ট জার্মেইনে যোগ দিয়েছিলেন নেইমার। তখনই বিষয়টা অবিশ্বাস্য ঠেকেছিল অনেকের কাছে। কিন্তু আগামীতে শোনা যেতে পারে ৪০০ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। তখন পূর্ববর্তী বিস্মিতরা কী করবেন!

স্প্যানিশ বিখ্যাত পত্রিকা এএস-এর খবর অনুযায়ী, নেইমারের জন্য প্রায় ৪০০ মিলিয়ন ইউরো চায় পিএসজি। আর সেটা দিতে রাজি রিয়ালও। নেইমারকে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে আনতে নেইমারের বাবা এবং দুইজন আইনজীবীর সঙ্গে কয়েক সপ্তাহ আগে প্যারিসে আলোচনা করেছেন রিয়ালের কর্মকর্তারা। ‘রিলিজ ক্লজ’র অর্থ ছাড়াও নেইমারকে চুক্তি স্বাক্ষরের জন্য বোনাস এবং বর্তমানের চেয়ে আরো বেশি বেতন দেয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে এই নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদানকে। ফরাসি কিংবদন্তিও উড়িয়ে দেননি সেই সম্ভাবনা। জিদান বলেন, ‘আমি আমার খেলোয়াড় ছাড়া অন্য কাউকে নিয়ে কথা বলতে রাজি নই। কিন্তু ৪০০ মিলিয়ন? এটা অসম্ভব কিছু নয়। পিএসজি নেইমারকে নিতে ২২২ মিলিয়ন ইউরো খরচ করেছে। যখন রিয়াল আমাকে এনেছিল, তখন তারা ৭২ মিলিয়ন ইউরো কিংবা তার চেয়ে কিছু কম-বেশি খরচ করেছিল। আমার কাছে সেটাকেই পাগলাটে মনে হয়েছিল। কিন্তু দেখুন, প্রায় ১০ বছর পর একজন খেলোয়াড়ের মূল্য গিয়ে দাঁড়ালো প্রায় ২২০ মিলিয়ন ইউরো। ১০ বছর পর কিংবা তারও আগে কেউ ৪০০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করতেই পারে।’

এদিকে আরেক স্প্যানিশ পত্রিকা মুন্দো দেপোর্তিভোর খবর অনুযায়ী, বার্সেলোনা ছেড়ে প্যারিস সেন্ট জার্মেইনে যাবার কারণে অনুতপ্ত নেইমার। আবার নু ক্যাম্পে ফিরতে চান ব্রাজিলিয়ান তারকা। সেজন্য বার্সেলোনাকে বার্তা পাঠিয়েছেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে আর্নেস্তো ভালভার্দেকে প্রশ্ন করা হয়েছিল এ বিষয়ে। গুঞ্জনটিকে এক কথায় উড়িয়ে দেন বার্সেলোনা কোচ।

ভালভার্দে বলেন, ‘খবরটা আমার কাছে কাল্পনিক মনে হয়। আমরা জানি না কোথা থেকে এটা আসলো কিংবা কোথায় গিয়ে এর শেষ হবে। অনুমান নিয়ে কথা না বলাই ভালো।’

মুন্দো দেপোর্তিভোর খবর অনুযায়ী, নেইমার বার্সেলোনার প্রতি তার বার্তায় স্বীকার করে নিয়েছেন মেসির ছায়া থেকে বের হয়ে আসার জন্য উদগ্রীব ছিলেন তিনি। কিন্তু ফরাসি লিগের মান এতটা খারাপ এটা বুঝেননি ব্রাজিলিয়ান তারকা। তাই যদি সম্ভব হয় তাহলে ২০১৯ সালে গ্রীষ্মের দল বদলের বাজারে আবার মেসিদের সঙ্গে যোগ দিতে চান তিনি। বার্সেলোনার সাবেক সতীর্থ ও নির্বাহীদের নেইমার বার্তাটা দিয়েছিলেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দ্বিতীয় লেগের খেলায় পিএসজি রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হওয়ার আগে। যদিও বার্সেলোনার মধ্যকার অনেকে তার আন্তরিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।-ইএসপিএন

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ মার্চ, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৬
যোহর১২:০৯
আসর৪:২৭
মাগরিব৬:০৯
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৬:০৪
পড়ুন