কোনো আফসোস নেই নাঈমের
স্পোর্টস রিপোর্টার০৪ জুন, ২০১৮ ইং
কোনো আফসোস নেই নাঈমের

এমন দুর্ভাগ্য মানুষের খুব একটা হয় না। সর্বশেষ যে টেস্ট সিরিজ খেলেছেন, সেখানেও একটা সেঞ্চুরি আছে নাঈম ইসলামের। তার কিছুদিন আগে নিউজিল্যান্ডকে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ করায় ছিল তার বড় অবদান। ঘরোয়া ক্রিকেটেও তার ব্যাট কথা বলছে মৌসুমের পর মৌসুম। কিন্তু কী এক বিস্ময়কর কারণে গত চার বছর ধরে জাতীয় দলের আশেপাশেও নেই নাঈম ইসলাম।

আফসোস করতে করতে হয়তো আফসোস করার অভ্যেসটাও এখন নষ্ট হয়ে গেছে। তারপরও নতুন করে স্বপ্ন দেখতে চান সবসময় নাঈম। এই যেমন সামনে ‘এ’ দলের অনেকগুলো সফর আছে। যদি সেই দলে সুযোগ মেলে আরেকবার নিজেকে এই প্লাটফর্মে প্রমাণ করতে চান। মূল স্বপ্নটা জাতীয় দলের। গতকাল বলছিলেন, আরও অন্তত চার-পাঁচ বছর জাতীয় দলের হয়ে পারফরম করে যাওয়ার ক্ষমতা ও স্বপ্ন আছে তার।

আপাতত লক্ষ্যটা ‘এ’ দলে জায়গা করে নেওয়া। সেই লক্ষ্যের কথায় বলছিলেন, ‘এ-টিমের সামনে অনেক খেলা আছে। শ্রীলঙ্কা আসবে। তারপর আয়ারল্যান্ড যাবে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ আসবে। আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি নিজেকে ভালোভাবে প্রস্তুত করার; যাতে আমি সুযোগ পেলে ওখানে যেন ভালো করতে পারি।’

নাঈম ইসলামের জায়গায় অন্য যে কেউ থাকলে তার কণ্ঠজুড়ে কেবল থাকতো না পাওয়ার বেদনা। বঞ্চনা আর সুযোগ না পাওয়ার হতাশা নিয়েই কথা বলাটা হয়তো স্বাভাবিক ছিল। কিন্তু নাঈম বলছেন, তিনি নিজেকে বঞ্চিত মনে করেন না। তার মনে হয়, আরও ভালো পারফরম করলে সুযোগ আসবে, ‘না, আমার সে রকম (বঞ্চিত) মনে হয় না। আমার পারফরম্যান্স হয়তোবা আপ টু দ্য মার্ক না, এ জন্য হয়তো সময় লাগছে। আমি যদি আরেকটু বেটার পারফরম্যান্স করতাম সুযোগটা তাড়াতাড়ি আসত।’

জাতীয় দলে সুযোগ পাননি বা পাচ্ছেন না, এ নিয়ে ভেবে সময় নষ্ট করতে রাজি নন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। তার কাছে বরং ধাপে ধাপে এগোনোটাই সেরা সমাধান। আপাতত সামনে যেহেতু ‘এ’ দল আছে, সেটাকেই তাই পাখির চোখ করেছেন। তিনি মনে করেন, ‘এ’ দলে ভালো করলে জাতীয় দলের দরজা হয়তো আবার তার জন্য খুলে যাবে। তার চেয়ে বড় কথা, এখানে পারফরম করলে নিজে তৃপ্তি পাবেন, ‘এ-টিম ন্যাশনাল টিমে ফেরার জন্য খুব ভালো একটা প্ল্যাটফর্ম। আমি এখানে যদি ভালো করতে পারি-সুযোগ আসবে কি আসবে না সেটা পরের কথা, এখানে পারফর্ম করলে নিজের ভেতর স্যাটিসফেকশন কাজ করবে।’

তবে একটা কথা নাঈম স্বীকার করলেন, জাতীয় দলে ফেরার জন্য উপযুক্ত সময়ে দাঁড়িয়ে আছেন তিনি। এখন জাতীয় দলে ফিরতে পারলে অন্তত চার-পাঁচ বছর টানা পারফরম করে যেতে পারেন নাঈম। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি এটাই  সঠিক সময়’। এখনও আমি বিশ্বাস করি, বাংলাদেশের হয়ে ৪-৫ বছর খেলার মতো অ্যাবিলিটি আমার আছে।’

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৪ জুন, ২০২০ ইং
ফজর৩:৪৪
যোহর১১:৫৭
আসর৪:৩৭
মাগরিব৬:৪৬
এশা৮:০৯
সূর্যোদয় - ৫:১০সূর্যাস্ত - ০৬:৪১
পড়ুন