অডিটের নামে ব্যবসায়ীদের হয়রানি করলে ব্যবস্থা :এনবিআর চেয়ারম্যান
১১ মার্চ, ২০১৮ ইং
অডিটের নামে ব্যবসায়ীদের হয়রানি করলে ব্যবস্থা :এনবিআর চেয়ারম্যান
g নরসিংদী প্রতিনিধি

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অডিটের নামে করদাতা কিংবা ব্যবসায়ীদের হয়রানি করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। গতকাল শনিবার নরসিংদীর মাধবদী এসপি ইনস্টিটিউটে ব্যবসায়ী নেতাসহ করদাতাদের সঙ্গে এনবিআরের রাজস্ব সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সতর্কবার্তা দেন।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, রাজস্ব বোর্ডের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ব্যবসায়ীদের হয়রানি করে থাকেন, এটা ব্যবসায়ীরা যেমন জানেন, তেমনি আমরা সিনিয়ররাও জানি। এখন থেকে এমন অভিযোগ পেলে দায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। সংলাপে উপস্থিত ব্যবসায়ী ও করদাতাদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, আপনারা যদি ন্যায্য পাওনা পরিশোধ করেন, তবে এতে কোন প্রকার হয়রানি যাতে না হতে হয়, তা আমি দেখবো।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, প্যাকেজ ভ্যাটে ছোট ব্যবসায়ীরা লাভবান হন। কিন্তু এটি বড় ব্যবসায়ীদের জন্য চালু করা হলে সরকারের রাজস্ব আদায় ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আগামী বাজেট প্রস্তুতির জন্য আমরা এখন থেকেই সংলাপ চালিয়ে যাচ্ছি। ব্যবসায়ী ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠনগুলোর সঙ্গে আলোচনা করেই ঠিক করা হবে, বাজেটে কী কী নীতিমালা থাকবে।

বন্ডের অপব্যবহার ঠেকাতে বন্দরে নজরদারি বাড়ানো হবে জানিয়ে তিনি বলেন, বন্দরে  নজরদারি বাড়িয়ে দেয়া হবে। তৈরি পোশাক খাতে সরকার যেসব সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে, তার যাতে অপব্যবহার না হয়, সে ব্যবস্থাও করা হবে। এসময় তিনি সরকারের উন্নয়ন যাত্রায় অংশগ্রহণের জন্য ব্যবসায়ীদের যুক্তিযুক্তভাবে রাজস্ব বাড়িয়ে দেয়ারও আহ্বান জানান।

কর অঞ্চল-১০ এর কমিশনার মোহাং আবু তাহের চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ সময় এনবিআরের কর বিভাগের সিনিয়র কর্মকর্তারা ছাড়াও নরসিংদী সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনজুর এলাহী, মাধবদী পৌরসভার মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক, এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক প্রবীর কুমার সাহা, নরসিংদী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ মার্চ, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৬
যোহর১২:০৯
আসর৪:২৭
মাগরিব৬:০৯
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৬:০৪
পড়ুন