আতঙ্কে কাঠমান্ডু ছাড়ছে নেপালিরা
৩০ এপ্রিল, ২০১৫ ইং
আতঙ্কে কাঠমান্ডু ছাড়ছে নেপালিরা
অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ত্রাণ পাওয়া যখন অনিশ্চিত, ঠিক সেসময় খাদ্য ও পানীয়র অপ্রতুলতার গুজব ছড়িয়ে পড়ায় আতঙ্কে নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডু ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। গতকাল বুধবার কূটনৈতিক সূত্রের বরাতে এমন খবর পাওয়া গেছে। এদিকে হিমালয়ের এ দেশটিতে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। খবর সিনহুয়ার।

গত শনিবার দেশটিতে ৭.৯ মাত্রার ভূমিকম্পে এখন পর্যন্ত ৫ হাজারের উপরে লোক মারা গেছে এবং ১০ হাজার ৯শ’ ১৫ জন আহত হয়েছে বলে মঙ্গলবার দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। আহতদের বেশিরভাগেরই অবস্থা আশঙ্কাজনক। এছাড়া শত শত মানুষ এখনো নিখোঁজ রয়েছে। দেশটির সেনাবাহিনীর ৮ জন কর্মকর্তা নিহত হয়েছে, ১১ জন নিখোঁজ এবং উদ্ধার অভিযান চালাতে গিয়ে ২৮ জন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার সেনাবাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল চন্দ্র পোখরেল একথা বলেন। দেশটির রাজধানী ও এর আশ-পাশের এলাকায় অনেক ঘর-বাড়ি ভেঙ্গে পুরো এলাকা ধ্বংস স্তূপে পরিণত হয়েছে, যা এখানো সরানো সম্ভব হয়নি। অনেক মৃতদেহ এখনো মাটির নিচে আটকা পড়ে আছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাছাড়া পর্যটন শহর ভক্তপুর একেবারে ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। এখানকার স্থানীয় লোকজন খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছেন। কেউ তাঁবুতে আশ্রয় নিয়েছে, কেউ থাকছেন ট্রাক আবার কেউবা বিভিন্ন যানবাহনে আশ্রয় নিয়েছে।

এদিকে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হুঁশিয়ার করে বলেছেন, মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার হতে পারে। তাছাড়া খাদ্য ও পানীয় সংকট দিন দিন ঘনীভূত হচ্ছে। যার সাথে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন দেশটির জনগণ। এর মধ্যেই সরকার রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে। জাতিসংঘ জানিয়েছে, দেশটির ৩৯ জেলায় ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। তবে ১১টি জেলায় এর ভয়াবহতা ছিল ব্যাপক, যাতে ২০ লক্ষ লোক বাস করে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ইং
ফজর৪:০৪
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩২
মাগরিব৬:২৯
এশা৭:৪৭
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:২৪
পড়ুন