মানবপাচারের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিচ্ছে ইইউ
বিবিসি২৭ আগষ্ট, ২০১৫ ইং
মানবপাচারের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিচ্ছে ইইউ
মানব পাচারকারীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার অঙ্গীকার করেছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের অভিবাসন বিষয়ক কমিশনার দিমিত্রি আভরামোপুলাস। তিনি বলেছেন, যুদ্ধ বিগ্রহের কারণে যারা ইউরোপে আসছে তাদের আশ্রয় পাওয়ার অধিকার আছে, কিন্তু নিতান্তই অর্থনৈতিক কারণে যারা অবৈধভাবে ঢুকছে, তাদের খুঁজে বের করে দেশে ফেরত পাঠানো হবে।

ইইউ কমিশনার এমন সময় এসব কথা বললেন যখন সিরিয়া এবং আফ্রিকার কিছু দেশ থেকে হাজার হাজার নারী, পুরুষ, শিশু বিপজ্জনকভাবে অবৈধপথে ইউরোপে ঢুকছে। বলা হচ্ছে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইউরোপ এ ধরনের শরণার্থী সংকটের মুখে আর পড়েনি। বিপুলসংখ্যক মানুষ আশ্রয় প্রার্থী হওয়ার ফলে যে চাপ তৈরি হয়েছে, ইউরোপের অনেক দেশই তাতে উদ্বিগ্ন। তবে ইওরোপীয় অভিবাসন ও গৃহায়ণ সংক্রান্ত কমিশনার দিমিত্রিস আভরামোপুলাস বলেছেন, এইসব শরণার্থীকে আশ্রয় দেয়ার একটা নৈতিক দায়িত্ব ইউরোপীয় ইউনিয়নের রয়েছে। কোনো কোনো দেশের উচিত বেশি করে এই দায়িত্ব পালন করা। তবে সিরিয়া, লিবিয়া, ইরিত্রিয়ার মত সংঘাতপূর্ণ দেশ থেকে যারা পালিয়ে আসছেন এবং যারা শুধু অর্থনৈতিক কারণে ইউরোপে ঢুকছেন, তাদের মধ্যে একটা পার্থক্য রয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আভরামোপুলাস বলছেন, এই দ্বিতীয় শ্রেণির আশ্রয় প্রার্থীদের তাদের দেশে ফেরত পাঠিয়ে দিতে হবে। ইউরোপের শরণার্থী সংকট মোকাবিলার প্রথম ধাপ হিসাবে মানবপাচারকারীদের বিরুদ্ধে একটা সর্বাত্মক লড়াই শুরু করতে হবে। তবে তিনি একই সাথে এ কথাও মেনে নেন যে কালই ইউরোপের শরণার্থী সমস্যার সমাধান হবে না এবং বহু বছর ধরে এই সংকট চলবে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ আগষ্ট, ২০১৯ ইং
ফজর৪:২০
যোহর১২:০১
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:২৫
এশা৭:৪০
সূর্যোদয় - ৫:৩৮সূর্যাস্ত - ০৬:২০
পড়ুন