রাজনৈতিক বাগাড়ম্বরপূর্ণ মন্তব্য বিশ্বের জন্য বিপজ্জনক :অ্যামনেস্টি
বিবিসি২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ইং
রাজনীতিবিদদের বিভক্তি সৃষ্টিকারী ও অমানবিক বাগাড়ম্বরপূর্ণ বক্তৃতা আরো বেশি বিভক্ত ও বিপজ্জনক বিশ্ব সৃষ্টি করছে। এছাড়া বিভিন্ন দেশের সরকারগুলো তাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার লক্ষ্যে শরণার্থীদের ব্যবহার করছে। মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব কথা বলা হয়েছে।

বিশ্বের ১৫৯ টি দেশের ওপর ভিত্তি করে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়েছে। লন্ডনভিত্তিক এ সংগঠনের প্রতিবেদনটি প্যারিস থেকে প্রকাশিত হয়। সংগঠনের বার্ষিক প্রতিবেদনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে “ক্রোধান্বিত ও অধিক বিভেদ সৃষ্টিকর” ব্যক্তির উদাহরণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়। তবে হোয়াইট হাউস প্রতিবেদনের বিষয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেনি।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, রাজনীতিবিদরা শরণার্থীদের তাদের রাজনৈতিক মনোবাসনার হাতিয়ার বানিয়ে তুলছে। শরণার্থীদের লক্ষ্য করে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে নেতিবাচক বক্তৃতা দেওয়া হয়েছে। এর প্রতিক্রিয়ায় বর্ণ, লিঙ্গ, জাতীয়তা ও ধর্মের ওপর নির্ভর করে লোকজনের ওপর আরো বেশি হামলা হচ্ছে। অ্যামনেস্টির মহাসচিব সলিল শেঠি বলেছেন, “মানুষের অধিকার নিয়ে যুদ্ধ করার পরিবর্তে অনেক নেতা আছেন যারা রাজনৈতিক সুবিধা আদায়ের জন্য অমানবিক এজেন্ডা গ্রহণ করে থাকেন।”

মহাসচিব বলেছেন, “তারা সীমার বাইরে চলে যাচ্ছেন। রাজনীতিবিদেরা লজ্জাহীন ও কার্যকরভাবে সকল ধরনের ঘৃণা উদ্রেককারী কথাবার্তা এবং নীতিকে বৈধতা দিয়ে চলেছেন। স্ত্রীবিদ্বেষ, বর্ণবাদ ও সমকামীতা নিয়ে ঘৃণ্য মন্তব্য করে থাকেন তারা।” তবে এই ক্ষেত্রে গতমাসে ট্রাম্পের দেওয়া নির্বাহী আদেশের কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়। ঐ নির্বাহী আদেশে সাতটি মুসলিম দেশের শরণার্থী ও অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। এছাড়া তুর্কি প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়েপ এরদোয়ান, হাঙ্গেরি প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর অরবান ও ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তে’কে প্রতিবেদনে ভয়, নিন্দা ও বিবাদ সৃষ্টিকারী হিসেবে অভিহিত করা হয়।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ইং
ফজর৫:১০
যোহর১২:১৩
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০১
এশা৭:১৪
সূর্যোদয় - ৬:২৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৬
পড়ুন