ঘৌতায় হামলা অব্যাহত ত্রাণ কার্যক্রম ব্যাহত
১১ মার্চ, ২০১৮ ইং
অকার্যকর হয়ে পড়েছে জাতিসংঘের যুদ্ধবিরতি

রয়টার্স ও আল জাজিরা

সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের কাছে পূর্ব ঘৌতায় সরকারি বাহিনী বিমান হামলার কারণে জাতিসংঘের ত্রাণ কার্যকম ব্যাহত হচ্ছে। নিরাপত্তা পরিষদের দেওয়া অস্ত্রবিরতির মধ্যেই হামলা অব্যাহত থাকায়  সেখানে অকার্যকর হয়ে পড়েছে রাশিয়া প্রস্তাবিত ৫ ঘণ্টার মানবিক যুদ্ধবিরতিও। সিরিয়ায় জাতিসংঘের এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, হামলার কারণে মানুষের কাছে ত্রাণ পৌঁছানো যাচ্ছে না।

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফায় বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ঘৌতায় প্রবেশ করতে সক্ষম হয় জাতিসংঘের একটি ত্রাণবহর। কিন্তু শুক্রবার থেকে আবারো বিমান হামলার তীব্রতা বৃদ্ধি করেছে সিরিয়ার সেনাবাহিনী। সরকার কর্তৃক নিরাপত্তা নিশ্চিতের প্রতিশ্রুতি দেওয়া সত্ত্বেও সেখানে পুনরায় বিমান হামলা চালানো হচ্ছে বলে জানান জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক আলি আল-জাতারি। এর ফলে সেখানে ত্রাণ কার্যক্রম দারুণভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এর আগে মানবিক সংকট লাঘবের একটি চেষ্টা হিসেবে গত সোমবার প্রথমবারের মতো ৪৬টি ট্রাকের একটি ত্রাণবহর ঘৌতায় প্রবেশ করতে সক্ষম হয়েছিল। কিন্তু সিরীয় সরকারি বাহিনী বুধবার থেকে হামলা শুরু করলে সেখানে আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থাগুলোর ত্রাণ ও সহযোগিতা কার্যক্রম প্রায় বন্ধ হয়ে যায়।

বিরোধীদের সর্বশেষ শক্তিশালী ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত পূর্ব ঘৌতায় প্রায় ৪ লাখ মানুষের বাস। ২০১৩ সাল থেকে এলাকাটি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। গত ১৮ ফেব্রুয়ারি সেখানে বিমান হামলা শুরু করে রাশিয়া সমর্থিত বাশার বাহিনী। মাত্র দু্ই সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে পূর্ব ঘৌতার বড় অংশটিই নিজেদের আয়ত্তে নিয়ে নেয় সিরীয় সেনাবাহিনী। পূর্ব ঘৌতার অর্ধেকের মতো এলাকা এখন বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। বাশার সরকারের সর্বশেষ এ অভিযান শুরু হওয়ার পর এক হাজারেরও বেশি সিরীয় নাগরিক নিহত হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার জানায় দাতব্য সংস্থা মেডিসিন্স সান্স ফ্রন্টিয়ার্স (এমএসএফ)।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ মার্চ, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৬
যোহর১২:০৯
আসর৪:২৭
মাগরিব৬:০৯
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৬:০৪
পড়ুন