ফ্রান্সে ধর্মঘটে অচল রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা
০৫ এপ্রিল, ২০১৮ ইং
ফ্রান্সে ধর্মঘটে অচল রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা
এএফপি

ফ্রান্সে গতকাল বুধবার টানা দ্বিতীয় দিনের মতো রেল ধর্মঘট পালিত হয়েছে। এতে দেশটির রেল যোগাযোগ  প্রায় অচল হয়ে পড়ে। এই ধর্মঘটকে দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রোর সংস্কার কার্যক্রমের পথে বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা হচ্ছে।

মঙ্গলবার দেশটিতে ধর্মঘট শুরু করে রেলকর্মীরা। ফরাসি সংবাদমাধ্যমগুলো একে ‘কালো মঙ্গলবার’ হিসেবে অভিহিত করেছে। এসএনসিএফ শ্রমিক নেতারা এই ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। তবে এয়ার ফ্রান্স কর্মী, পরিচ্ছন্নতা কর্মী ও শক্তি খাতের কয়েকটি শ্রমিক সংগঠনও মঙ্গলবার পৃথকভাবে কর্মবিরতি পালন করেছে।

ক্ষমতা গ্রহণের মাত্র এগারো মাসের মধ্যেই ম্যাঁক্রোকে এই কঠিন পরীক্ষার মুখে পড়তে হলো। ২০২০ সাল নাগাদ ইউরোপীয় দেশগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নামতে হলে এই মুহূর্তে রেল খাতে বড় ধরনের পরিবর্তন জরুরি বলে মনে করছে কর্তৃপক্ষ। ম্যাঁক্রো সরকারের মতে, ইউরোপের অন্যান্য দেশের চেয়ে ফ্রান্সে ট্রেন চালাতে সরকারের ৩০ শতাংশ বেশি ব্যয় হয়।

শ্রমিক ইউনিয়নগুলো ম্যাঁক্রোর এই সংস্কার কার্যক্রমকে জাতীয় রেল সংস্থাটিকে বেসরকারিকরণের প্রথম ধাপ হিসেবে বিবেচনা করছে।  তবে সরকার তাদের এই অভিযোগ অস্বীকার করছে। সরকার বলছে, রেল কর্মীদের বিশেষ মর্যাদা দেওয়ার লক্ষ্যেই এই সংস্কার করা হচ্ছে, যাতে করে তাদের চাকরি জীবন নিশ্চিত হয় এবং তাড়াতাড়ি অবসরে যেতে পারে।

আগামী ২৮ জুন পর্যন্ত সপ্তাহে দুইদিন করে ধর্মঘট পালন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ধর্মঘটে লন্ডন ও ব্রাসেলসগ্রামী এউরোস্টার ট্রেনের এক-তৃতীয়াংশ চলাচল করবে। এছাড়া বেলজিয়াম ও নেদারল্যান্ডগামী থালিস ট্রেন চলাচল প্রায় স্বাভাবিক থাকবে। তবে স্পেন, ইতালি অথবা সুইজারল্যান্ডে কোন ট্রেনই চলাচল করবে না।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৫ এপ্রিল, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩০
যোহর১২:০২
আসর৪:৩০
মাগরিব৬:১৯
এশা৭:৩২
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৬:১৪
পড়ুন