উইঘুর মুসলিমদের ওপর নির্যাতন বন্ধের আহ্বান ইইউ পার্লামেন্টের
০৬ অক্টোবর, ২০১৮ ইং

ইত্তেফাক ডেস্ক

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) পার্লামেন্টের সংসদ সদস্যরা উইঘুর মুসলমানদের বিরুদ্ধে দমন অভিযান বন্ধ করতে চীন সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। ইইউ পার্লামেন্টের এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জাননো হয়। চীনের পশ্চিমাঞ্চলীয় জিনজিয়াং অঞ্চলে উইঘুর মুসলিমদের গণহারে গ্রেপ্তার ও নির্যাতনের নিন্দাও জানিয়েছে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট।

বিবৃতিতে বলা হয়, বিশ্বস্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী উইঘুরে মানবাধিকার পরিস্থিতির গুরুতর অবনতি ঘটায় আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। এছাড়া জাতিসংঘ কমিটির সাম্প্রতিক পরিসংখ্যানের পর্যবেক্ষণে জাতিগত বৈষম্য (সিইআরডি) বিলুপ্তি বন্ধের বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণ করে। এসব প্রতিবেদন উইঘুরদের এবং অন্য সংখ্যালঘুদের রাজনৈতিক ‘পুনরায় শিক্ষা কেন্দ্রে’ গণহত্যা সম্পর্কে বিপদ ইঙ্গিত করে। এমনকি গণ নজরদারি, ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা এবং বিদেশে থাকা উইঘুররা চীনে ফিরে আসছে।

এদিকে চীন দাবি করে আসছে, ইসলামিক সশস্ত্র যোদ্ধা ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হুমকির মুখে আছে জিনজিয়াং প্রদেশ। এসব যোদ্ধা ও বিচ্ছিন্নতাবাদী হামলার পরিকল্পনা করছে বলেও তারা দাবি করে। এছাড়া সংখ্যাগরিষ্ঠ স্থানীয় চীনা আদিবাসী হানদের সঙ্গে উইঘুরদের সংঘর্ষের আশঙ্কাও প্রকাশ করে চীন। সাম্প্রতিক অস্থিরতায় সেখানে শত শত মানুষ নিহত হয়েছে। তবে সমপ্রতি জাতিসংঘের একটি মানবাধিকার গ্রুপ দাবি করে, চীনে ১০ লাখ উইঘুর মুসলিমকে কাউন্টার-এক্সট্রিমিজম সেন্টারগুলোতে আটকে রাখার বিশ্বাসযোগ্য তথ্য তারা পেয়েছে।

স্ট্রাসবার্গে বৃহস্পতিবার ইউরোপীয় পার্লামেন্টের অধিবেশন থেকে অবিলম্বে উইঘুর মুসলমানদের গণহারে গ্রেপ্তার বন্ধ করার জন্য চীন সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। সেইসঙ্গে সব বন্দিশিবির বন্ধ করে দিয়ে আটক ব্যক্তিদের যতদ্রুত সম্ভব নিঃশর্ত মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধিরা চীনের এসব বন্দিশিবিরের দুর্বিষহ জীবন, নির্যাতন এবং বন্দিদের মৃত্যুর ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তারা চীন সরকারকে ইউরোপের পক্ষ থেকে স্পষ্ট বার্তা দেওয়ার জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা ফেডেরিকা মোগেরিনির প্রতি আহ্বান জানান।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৬ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩৬
যোহর১১:৪৭
আসর৪:০৩
মাগরিব৫:৪৫
এশা৬:৫৬
সূর্যোদয় - ৫:৫১সূর্যাস্ত - ০৫:৪০
পড়ুন